1. arif.arman@gmail.com : Daily Coxsbazar : Daily Coxsbazar
  2. dailycoxsbazar@gmail.com : ডেইলি কক্সবাজার :
  3. litonsaikat@gmail.com : ডেইলি কক্সবাজার :
  4. shakil.cox@gmail.com : ডেইলি কক্সবাজার :
  5. info@dailycoxsbazar.com : ডেইলি কক্সবাজার : Daily ডেইলি কক্সবাজার
আজ ২১তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী : কোস্ট গার্ডে যুক্ত হচ্ছে হেলিকপ্টার - Daily Cox's Bazar News
বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০২:৪১ পূর্বাহ্ন
নোটিশ ::
ডেইলি কক্সবাজারে আপনার স্বাগতম। প্রতি মূহুর্তের খবর পেতে আমাদের সাথে থাকুন।
সংবাদ শিরোনাম ::
কট্টরপন্থী ইসলামী দল হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের জন্য চ্যালেঞ্জ: এসএডিএফ কক্সবাজারের আট তরুণ তরুণীকে ‘অদম্য তারূণ্য’ সম্মাননা জানাবে ঢাকাস্থ কক্সবাজার সমিতি Job opportunity বিশ্বের সবচেয়ে বড় আয়না, নাকি স্বপ্নের দেশ! আল-আকসা মসজিদে ইহুদিদের প্রার্থনা বন্ধের আহ্বান আরব লীগের পেকুয়ায় পুলিশের অভিযানে ৮০ হাজার টাকার জাল নোটসহ গ্রেফতার-১ পেকুয়ায় অস্ত্র নিয়ে ফেসবুকে ভাইরাল : অস্ত্রসহ আটক শীর্ষ সন্ত্রাসী লিটন টেকনাফে একটি পোপা মাছের দাম হাঁকাচ্ছেন সাড়ে ৭ লাখ টাকা ! কক্সবাজারের টেকনাফে র‍্যাবের অভিযানে ইয়াবাসহ আটক-১ নিউ ইয়র্কে মেয়র কার্যালয়ে শহীদ মিনার নির্মাণ নিয়ে কনসাল জেনারেলের আলোচনা

আজ ২১তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী : কোস্ট গার্ডে যুক্ত হচ্ছে হেলিকপ্টার

ডেইলি কক্সবাজার ডেস্ক ::
  • আপডেট সময় রবিবার, ১৪ ফেব্রুয়ারী, ২০১৬
  • ২২৮ বার পড়া হয়েছে

costgurdবাংলাদেশ কোস্ট গার্ডসক্ষমতা বাড়ছে কোস্ট গার্ডের। সমুদ্র উপকূলীয় এলাকার নিরাপত্তা আরও জোরদার করতে এ বাহিনীতে দু’টি হেলিকপ্টার যুক্ত হচ্ছে এ বছরই। এছাড়া, এ বছর আরও নতুন দু’টি জাহাজ নিয়ে আসা হবে। এতে বাহিনীর জলযান সংকট নিরসনের পাশাপাশি আকাশপথেও টহল জোরদার হবে বলে মনে করেন সংশ্লিষ্টরা। বাহিনীর সক্ষমতা বাড়াতে এমন আরও কিছু পরিকল্পনা নিয়ে আজ পালিত হবে ২১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী। এ অনুষ্ঠানেই এসব ঘোষণা দেবেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল।
স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও কোস্ট গার্ড সূত্র জানায়, ঢাকার সদরঘাট থেকে চট্টগ্রাম ও মংলা সমুদ্রবন্দর হয়ে গভীর সমুদ্রের বেইজ লাইন ২০০ নটিক্যাল মাইল পর্যন্ত ৭১০ কিলোমিটারের বিস্তৃত এলাকায় এ বাহিনীর সদস্যরা দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়া, দেশের হাজার হাজার বর্গকিলোমিটার দীর্ঘ নদীপথের নিরাপত্তার দায়িত্বও কোস্ট গার্ডের। কিন্তু দীর্ঘ এ জলপথের নিরাপত্তায় এ বাহিনীর জনবল রয়েছে তিন হাজারের কিছু বেশি। এ বাহিনীর শীর্ষ কর্মকর্তা থেকে নাবিক পর্যন্ত সব সদস্যই নৌবাহিনী থেকে প্রেষণে কর্মরত। নিজস্ব কোনও নিয়োগ প্রক্রিয়াও নেই তাদের।
জাতীয় জলসীমা ও উপকূলীয় অঞ্চলে জলদস্যুতা দমন,অবৈধ চোরাচালান রোধ, মৎস্য, তেল, গ্যাস ও বনজ সম্পদ রক্ষাসহ পরিবেশ দূষণ প্রতিরোধ ও সমুদ্রবন্দরের নিরাপত্তা সহায়তা দেওয়ার মাধ্যমে সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণ এবং আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় সহায়তার জন্য ১৯৯৪ সালে কোস্ট গার্ড প্রতিষ্ঠিত হয়। কিন্তু প্রতিষ্ঠার দুই দশক পার হলেও কোস্ট গার্ড স্বয়ংসম্পূর্ণ বাহিনী হিসেবে এখনও গড়ে উঠতে পারেনি। কোস্ট গার্ডের দুর্বলতাগুলো কাজে লাগিয়ে দেশি-বিদেশি চোরাকারবারীরা সমুদ্র এলাকা ব্যবহার করে মানব-মাদক পাচারসহ নানা অপরাধ করে যাচ্ছেন। নানা সীমাবদ্ধতার কারণে মানব-মাদকসহ পাচারসহ বিভিন্ন অপরাধ প্রতিরোধে সত্যিকার অর্থেই কোস্ট গার্ডের সক্ষমতা খুবই কম বলে মনে করেন কোস্ট গার্ডের কর্মকর্তারাও। জনবল ও জলযানসহ অবকাঠামোগত অসুবিধার কারণেই সাগরপথে অপরাধ দমনে কার্যকর কোনও ভূমিকা রাখতে পারছে না কোস্ট গার্ড।
কোস্ট গার্ড সূত্র জানায়, জনবল সংকটের পাশাপাশি জলপথের নিরাপত্তা টহলে জলযানেরও অভাব প্রকট এ বাহিনীর। তিন হাজার ৩৩৯ জনের এ বাহিনীতে ছোট জাহাজ রয়েছে ১৪টি। গ্রীষ্মকালে সমুদ্র যখন উত্তাল থাকে, তখন এসব জাহাজ দিয়ে গভীর সমুদ্রে টহল দেওয়া দুঃসাধ্য হয়ে পড়ে। ছোট নদ-নদীতে টহলের জন্য স্পিডবোট রয়েছে মাত্র ৯৩টি। এ কারণেই এ বছর এ বাহিনীতে ইতালি থেকে আরও দুটি বড় জাহাজ ও দুটি হেলিকপ্টার সংগ্রহ করবে কর্তৃপক্ষ।
এরইমধ্যে বাংলাদেশ কোস্ট গার্ড বিল-২০১৬ নামে জাতীয় সংসদে একটি বিল উত্থাপিত হয়েছে গত ২৫ জানুয়ারি। এ বিলে বাহিনীতে বিদ্রোহের শাস্তি মৃত্যুদণ্ডের বিধান রেখে ওইদিন জাতীয় সংসদে এ বিল উত্থাপন করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। পরে তা পরীক্ষা করে প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটিতে পাঠানো হয়।
বাহিনী সংশ্লিষ্টরা জানান, সাগরপথে মানবপাচারের বিষয়টি আলোচনায় আসার পর কোস্ট গার্ডের সক্ষমতার বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নজরে আসে। এরপর বাহিনীর জলযানসহ বিভিন্ন জরুরি সরঞ্জাম কেনার জন্য ৪৬৮.২২৭ কোটি টাকার অনুমোদন দেওয়া হয়। এতে ইনশোর পেট্রোল ভেসেল (আইপিভি) তিনটি, বড় হাই স্পিডবোট ছয়টি, উদ্ধার কাজের জন্য ভাসমান ক্রেন একটি ছাড়াও অফিস সরঞ্জাম ও ফার্নিচার কেনা হবে। এছাড়াও ইতালিয়ান নৌবাহিনী থেকে কোস্ট গার্ডের জন্য চারটি জাহাজ কেনারও পরিকল্পনা নেওয়া হয়।

সংশ্লিষ্টরা আরও জানান, যারা সাগরপথে অবৈধভাবে বিভিন্ন দেশে যায়, তারা নিজেদের জেলে হিসেবে পরিচয় দেয়। সমুদ্রে মাছ ধরতে একটি ট্রলারে ৩০ থেকে ৪০ জন লোকের প্রয়োজন হয়। শত শত ট্রলারে হাজার হাজার জেলে সাগরে মাছ ধরেন। এ সুযোগকে কাজে লাগিয়ে তারা কোস্ট গার্ডের নাবিকদের চোখ এড়িয়ে যান।
স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ শাখার সিনিয়র তথ্য কর্মকর্তা শরীফ মাহমুদ অপু বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, কোস্ট গার্ডকে শক্তিশালী করণের অংশ হিসেবে গত বছর বেশ কিছু পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। আগামী বছরও এ প্রক্রিয়া অব্যাহত থাকবে। তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ কোস্ট গার্ডকে শক্তিশালী করণ’ প্রকল্পের আওতায় কোস্ট গার্ডের জন্য একটি প্রশিক্ষণ ঘাঁটি নির্মাণ করা হয়েছে। চাঁদপুরে কোস্ট গার্ডের একটি স্টেশন ঘাঁটিসহ চারটি ওপিভি, দু’টি আইপিভি, দু’টি এফপিবি, চারটি হারবার পেট্রোল বোট, ১০টি হাই স্পিড বোট, বিভিন্নস্থানে আটটি পল্টুন, নাবিকদের জন্য ব্যারাক নির্মাণ ও ৯৩টি হাই স্পিড বোটসহ অত্যাধুনিক জলযান সংগ্রহ করা হয়েছে। ২ হাজার ২২৫ জন থেকে ৩ হাজার ৩৩৯ জনে উন্নীত করা হয়েছে।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এই তথ্য কর্মকর্তা আরও জানান, মিয়ানমার ও ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের সমুদ্রসীমা নির্ধারণ বর্তমান সরকারের একটি ঐতিহাসিক অর্জন। সমুদ্রসীমা নির্ধারিত হওয়ায় বঙ্গোপসাগরে বিদ্যমান বিপুল খনিজ সম্পদ বিশেষ করে প্রাকৃতিক গ্যাস ও মৎস্য সম্পদেও ওপর দেশের সার্বভৌম অধিকার প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। ব্লু ইকোনমির সম্পদ আহরণ এবং সুষ্ঠু ব্যবহার বাংলাদেশের অর্থনীতিতে নতুন মাত্রা যোগ হয়েছে। এসব কারণেও কোস্ট গার্ডকে শক্তিশালী করণের প্রয়োজনীয়তা অনুভব করছে কর্তৃপক্ষ।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2020 Dailycoxsbazar
Theme Customized BY Media Text Communications