আজকের দিন-তারিখ

  • বুধবার ( রাত ১২:২২ )
  • ২০শে আগস্ট, ২০১৯ ইং
  • ১৯শে জিলহজ্জ, ১৪৪০ হিজরী
  • ৬ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ ( শরৎকাল )

Archive Calendar

আগস্ট ২০১৯
সোম মঙ্গল বুধ বৃহস্পতি শুক্র শনি রবি
« জুলাই    
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১  
কক্সবাজারজাতীয়

ইয়াবা ডন সাইফুলের ‘সেফ গার্ডরা’ আতঙ্কে

144views

বন্দুকযুদ্ধে হাজী সাইফুল করিম নিহত 

অনলাইন ডেস্ক : কক্সবাজারের ইয়াবা ডন সিআইপি সাইফুল করিমের কাছ থেকে আর্থিক সুবিধা নিয়ে ইয়াবা কারবারে পৃষ্ঠপোষকতা দেওয়া প্রভাবশালীরা বিপাকে পড়েছেন। সাইফুল করিম দেশে ফিরে পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদে অনেকের নামই ফাঁস করে দিয়েছেন। তার মাথায় ছায়া হয়ে থাকা এসব ব্যক্তির মধ্যে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর অসাধু কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধি ও রাজনৈতিক নেতা, ও সাংবাদিক রয়েছেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, সাইফুল করিম ইয়াঙ্গুন থেকে দেশে ফেরার পর তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে পুলিশ সদর দপ্তরের একটি বিশেষ দল কক্সবাজার যায়। জিজ্ঞাসাবাদে সাইফুল দিয়েছেন চাঞ্চল্যকর ইয়াবা কানেকশনের তথ্য।

এদিকে, টেকনাফ সীমান্তে পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে ইয়াবা কারবারি হাজী সাইফুল করিম নিহত হয়েছেন। শুক্রবার (৩১ মে) দিবাগত রাতে স্থানীয় নাফ নদীর স্থলবন্দর সংলগ্ন এলাকায় বন্দুকযুদ্ধ ঘটে। ঘটনাস্থল থেকে নয়টি এলজি, এক লাখ ইয়াবা ও বিপুল পরিমাণ কার্তুজ উদ্ধার করা হয়েছে।

নিহত সাইফুল করিম টেকনাফের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের শীলবনিয়া এলাকার ডা. হানিফের ছেলে।

অন্যদিকে, গত বছর ১৬ মে দেশব্যাপী মাদকবিরোধী বিশেষ অভিযান শুরুর পর গা-ঢাকা দেন তিনি। আত্মগোপনের প্রায় ৯ মাস পর দেশে ফিরেন সাইফুল করিম।

সাইফুল করিমের ইয়াবা ব্যবসার বিস্তৃত নেটওয়ার্ক ছড়ানো ছিল টেকনাফ থেকে চট্টগ্রাম পর্যন্ত। ঘাটে ঘাটে মোটা অঙ্কের অর্থ দিতেন। বিনিময়ে তার সেইফ গার্ড হিসেবে কাজ করতেন ওইসব সুবিধাভোগী প্রভাবশালী।

ইয়াবা ডন হিসেবে পরিচিত নিহত সাইফুল করিম স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়সহ বিভিন্ন তালিকায় এক-দুই নম্বরে থাকা শীর্ষ ইয়াবাকারবারি সাইফুল করিম টাকার বিনিময়ে ব্যবসায়িক ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তির (সিআইপি) তকমাও বাগিয়ে নেন।
মালিক বনে গেছেন শত শত কোটি টাকার।

বলা হয়ে থাকে, সাইফুলের হাত ধরে বাংলাদেশে ইয়াবার প্রবেশ ঘটে।

কক্সবাজার জেলার পুলিশ সুপার এবিএম মাসুদ হোসেন বলেন, ‘ইয়াবা কারবারে সম্পৃক্ত কেউই ছাড় পাবে না।’