1. arif.arman@gmail.com : Daily Coxsbazar : Daily Coxsbazar
  2. dailycoxsbazar@gmail.com : ডেইলি কক্সবাজার :
  3. litonsaikat@gmail.com : ডেইলি কক্সবাজার :
  4. shakil.cox@gmail.com : ডেইলি কক্সবাজার :
  5. info@dailycoxsbazar.com : ডেইলি কক্সবাজার : Daily ডেইলি কক্সবাজার
উখিয়ায় শরনার্থীদের দু’গ্রুপে গুলি বিনিময় : আহত-৩ - Daily Cox's Bazar News
সোমবার, ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৪:১২ অপরাহ্ন
নোটিশ ::
ডেইলি কক্সবাজারে আপনার স্বাগতম। প্রতি মূহুর্তের খবর পেতে আমাদের সাথে থাকুন।
সংবাদ শিরোনাম ::
কট্টরপন্থী ইসলামী দল হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের জন্য চ্যালেঞ্জ: এসএডিএফ কক্সবাজারের আট তরুণ তরুণীকে ‘অদম্য তারূণ্য’ সম্মাননা জানাবে ঢাকাস্থ কক্সবাজার সমিতি Job opportunity বিশ্বের সবচেয়ে বড় আয়না, নাকি স্বপ্নের দেশ! আল-আকসা মসজিদে ইহুদিদের প্রার্থনা বন্ধের আহ্বান আরব লীগের পেকুয়ায় পুলিশের অভিযানে ৮০ হাজার টাকার জাল নোটসহ গ্রেফতার-১ পেকুয়ায় অস্ত্র নিয়ে ফেসবুকে ভাইরাল : অস্ত্রসহ আটক শীর্ষ সন্ত্রাসী লিটন টেকনাফে একটি পোপা মাছের দাম হাঁকাচ্ছেন সাড়ে ৭ লাখ টাকা ! কক্সবাজারের টেকনাফে র‍্যাবের অভিযানে ইয়াবাসহ আটক-১ নিউ ইয়র্কে মেয়র কার্যালয়ে শহীদ মিনার নির্মাণ নিয়ে কনসাল জেনারেলের আলোচনা

উখিয়ায় শরনার্থীদের দু’গ্রুপে গুলি বিনিময় : আহত-৩

ডেইলি কক্সবাজার ডেস্ক ::
  • আপডেট সময় সোমবার, ১৮ জানুয়ারী, ২০১৬
  • ২২১ বার পড়া হয়েছে

ukhia-coxsbazar-map-dcডাকাতির ঘটনার টাকার ভাগ-বাটোয়ারাকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের সংঘর্ষে গুলি বিদ্ধ হয়ে ৩জন গুরুতর আহত হয়েছে। গত শনিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে উখিয়ার কুতুপালং টেলিভিশন কেন্দ্রের পশ্চিম পাশে গভীর জঙ্গলে ঘটনাটি ঘটে। ঘটনার খবর পেয়ে কুতুপালং শরনার্থী ক্যাম্পের ইনচার্জ মোঃ মাহমুদুল হক ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। এ সময় থানার ওসি হাবিবুল রহমান, ক্যাম্প ম্যানেজমেন্ট কমিটির চেয়ারম্যান মোঃ ইসমাইল, নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান মোঃ ইমরান, সাবেক ক্যাম্প ম্যানেজমেন্ট কমিটির সদস্য আবুল শামা ও নুরুল ইসলাম ঘটনাস্থল থেকে আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায়। কুতুপালং শরনার্থী শিবিরের ২৮নং শেডের, ডি-ব্লকের বাসিন্দা মৃত গুনু মিয়ার ছেলে আলী আহমদ (৪০) গুলি বিদ্ধ হয়ে বর্তমানে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এছাড়া ডাকাতের এলোপাতাড়ি গুলিতে ১নং শেডের, এ-ব্লকের বাসিন্দা মৃত ডাক্তার নজিরের ছেলে আবুল কালাম ওরফে ডাকাত কালাম (৪২) ও ২৩নং শেডের, বি-ব্লকের বাসিন্দা ওমর হামজা (৪৫) গুরুতর আহত হয়ে বর্তমানে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছে বলে ক্যাম্প ম্যানেজমেন্ট কমিটির নবনির্বাচিত সভাপতি মোঃ ইমরান স্বীকার করেছেন।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, কুতুপালং শরনার্থী শিবিরে দীর্ঘদিন ধরে একটি অপরাধী চক্র সক্রিয় হয়ে উঠে। এসব অপরাধীরা রোড ডাকাতি, অপহরণ, খুন, ছিনতাই, ভাড়াটে কিলার, মাছের ঘের দখলসহ আইন শৃংখলা অবনতির মত ঘটনা চালিয়ে আসছে। গত শনিবার রাতে উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা শিবিরের চিহ্নিত ১০ জনের একটি ডাকাত দল ডাকাতি করে টাকার ভাগ-বাটোয়ারার ঘটনা নিয়ে দু’পক্ষের তর্কা-তর্কি ও কথা- কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে রোহিঙ্গা শিবিরের মৃত নবী হোছন ওরফে ডাকাত মুস্তাফিজের ছেলে খাইরুল আমিন (৩২), টেকনাফের নয়াপাড়া শিবিরের এইচ-ব্লকের বাসিন্দা মৃত লাল বুইজ্যার ছেলে বহু মামলার পলাতক আসামী নুর আলম (৩৫), আই-ব্লকের ভুলু, ই-ব্লকের মৃত আকাম উদ্দিনের ছেলে মোঃ জাবের, এফ-ব্লকের মোজাফফর আহমদের ছেলে মনির আহমদ, গুলি বিদ্ধ আলী আহমদ, আবুল কালাম, ওমর হামজাসহ ১০জনের সশস্ত্র ডাকাত দল গোপনে টাকার ভাগ-বাটোয়ারা করতে রোহিঙ্গা বস্তির পশ্চিম পাশে রাতে বৈঠকে বসে। এসময় ডাকাতদের মধ্যে কথা-কাটাকাটি হলে তারা দু’গ্র“পে বিভক্ত হয়ে পড়ে। একপর্যায়ে ডাকাত খাইরুল আমিন ও জাবেরের হাতে থাকা বন্দুক দিয়ে ৫ রাউন্ড এলোপাতাড়ি গুলি ছুঁড়লে আলী আহমদ, ওমর হামজা ও আবুল কালাম গুলি বিদ্ধ হয়ে মাটিতে লুটে পড়ে। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে গুলি বিদ্ধ ৩ ডাকাতকে উদ্ধার করে হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে প্রেরণ করেছে। এদিকে টেকনাফের নয়াপাড়া রোহিঙ্গা শিবির থেকে একাধিক মামলার গ্রেপ্তারি পরোয়ানার হুলিয়া মাথায় নিয়ে পালিয়ে এসে গোপনে কুতুপালং শরনার্থী শিবিরে আশ্রয় নেয়। গত শনিবার রাতের গুলাগুলির ঘটনায় এসব চিহ্নিত ডাকাতরা নেতৃত্ব দিয়েছে বলে জানা গেছে। এ ঘটনায় ক্ষুব্দ হয়ে কুতুপালং শরনার্থী শিবিরে সাধারণ রোহিঙ্গারা অস্ত্রধারী ডাকাত, সন্ত্রাসী, অপহরণকারী, ইয়াবা বিক্রেতা, ইয়াবা সেবী ও রোড ডাকাতির নায়কদের গ্রেপ্তারের দাবীতে কুতুপালং ক্যাম্প ইনচার্জ এর নিকট গতকাল বোরবার একটি স্মারক লিপি প্রদান করেন। কুতুপালং পুরো রোহিঙ্গা শরনার্থী শিবিরে সাঁড়াশি অভিযান চালিয়ে চিহ্নিত পেশাদার ডাকাতদের গ্রেপ্তার ও তাদের রক্ষিত অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার করে শরনার্থী শিবিরের স্বাভাবিক পরিস্থিতি ফিরিয়ে আনার জন্য উর্ধবতন পুলিশ কর্তৃপক্ষের নিকট সাবেক ইউপি সদস্য ও কুতুপালং উচ্চ বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব বখতিয়ার আহমদ মেম্বার জোর দাবী জানাচ্ছে।

ক্যাম্প ম্যানেজমেন্ট কমিটির চেয়ারম্যান মোঃ ইসমাইল বলেন, ডাকাতদের সংঘর্ষের পর আহত ডাকাতরা তাদের সম্পূর্ণ ঘটনা পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছেন। এসব অপরাধীদের নিকট পুরো রোহিঙ্গা শরনার্থী শিবির জিম্মি হয়ে পড়েছে। তাদের নিকট রক্ষিত অবৈধ অস্ত্রগুলো উদ্ধারের জন্য সংশ্লিষ্ট আইন শৃংখলা বাহিনীকে এগিয়ে আসতে হবে। ক্যাম্প ইনচার্জ মোঃ মাহমুদুল হক ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, শরনার্থী শিবিরের স্বাভাবিক পরিস্থিতি কিছুটা শান্ত রয়েছে। অপরাধীদের গ্রেপ্তার করতে পুলিশকে নির্দেশ প্রদান করা হয়।

উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ হাবিবুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। উল্লেখ্য, গুলি বিদ্ধ আলী আহমদ, আবুল কালাম অস্ত্র মামলায় সাজা ভোগের পর জেল থেকে বেরিয়ে এসে আবারো ডাকাতির ঘটনায় জড়িয়ে পড়ে। বর্তমানে ডাকাত ওমর হামজার বিরুদ্ধে একাধিক মামলার গ্রেপ্তারি পরোয়ানা তামিল রয়েছে বলে পুলিশ সূত্রে জানা গেছে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2020 Dailycoxsbazar
Theme Customized BY Media Text Communications