আজকের দিন-তারিখ

  • মঙ্গলবার ( সকাল ৬:৩০ )
  • ২৩শে জুলাই, ২০১৯ ইং
  • ২০শে জিলক্বদ, ১৪৪০ হিজরী
  • ৮ই শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ ( বর্ষাকাল )

Archive Calendar

জুলাই ২০১৯
সোম মঙ্গল বুধ বৃহস্পতি শুক্র শনি রবি
« জুন    
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  
কক্সবাজার

কক্সবাজারে যানজট : ফাইলবন্দি ট্রাফিক পুলিশের ৯ প্রস্তাব

3views

২০১৭ সালের মধ্যভাগে পর্যটন নগরী কক্সবাজারে যানজট কমাতে জেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির বৈঠকে ট্রাফিক পুলিশের পক্ষ থেকে নয়টি প্রস্তাব উপস্থাপন করা হয়েছিল। বাস্তবায়ন দূরে থাক, সেসব প্রস্তাব এক বছর ধরেই ফাইলবন্দি। এমনকি প্রশাসনের কর্তাব্যক্তিরাও এসব প্রস্তাবের কথা ভুলতে বসেছেন।

জেলা ট্রাফিক পুলিশ সূত্র জানায়, পর্যটকদের যাতায়াতে প্রতিবন্ধকতা, যানবাহনের নৈরাজ্য ও যানজটের সমস্যা সমাধানের জন্য ট্রাফিক পুলিশের পক্ষ থেকে নয়টি কারণ চিহ্নিত করা হয়। এসব সমস্যা সমাধানে করণীয় সম্পর্কে ট্রাফিক পুলিশের পক্ষ থেকে জেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির বৈঠকে নয়টি লিখিত প্রস্তাব দেয়া হয়। এ প্রস্তাবগুলো হচ্ছে পথচারীদের চলাচলের সুবিধার্থে কলাতলীর সার্ফিং (পুরনো ডলফিন মোড়) চত্বর থেকে জাম্বুর মোড় পর্যন্ত সড়কের পশ্চিম পাশের নালার ওপর স্ল্যাব নির্মাণ করে ফুটপাত তৈরি এবং এই সড়কের পশ্চিম পাশের গাছ ও বৈদ্যুতিক খুঁটি অপসারণ, এক্সক্যাভেটর দিয়ে নিয়মিত নর্দমা থেকে কাদা-ময়লাযুক্ত মাটি অপসারণ, রাস্তার দুপাশের বাস কাউন্টার বন্ধ করে দেয়া, সুগন্ধা মোড়ের কালভার্ট প্রশস্তকরণ ও একই পয়েন্টে ফুট ওভারব্রিজ নির্মাণ, সমুদ্রসৈকত ঘেঁষে সি-ইন পয়েন্টের সড়কটি বর্ধিত করে কলাতলীর সাথে সংযুক্তকরণ, প্রতিদিন সকাল আটটা থেকে রাত নয়টা পর্যন্ত শহরে কোনো বড় ধরনের যানবাহন প্রবেশ করতে না দেয়া, দূরপাল্লার বাসের টার্মিনালে অবস্থান নিশ্চিত ও বাস মালিকদের উদ্যোগে যাত্রীদের মিনিবাস বা মাইক্রোবাসের মাধ্যমে গন্তব্যে পৌঁছে দেয়ার ব্যবস্থা করা, শহরের বাজারঘাটা ও বার্মিজ মার্কেটে এলাকার নালার আবর্জনা যথাসময়ে পরিষ্কার করা এবং শহরের টমটমের সংখ্যা কমিয়ে দেড় হাজারে নামিয়ে আনা বা শিফটিংয়ের ব্যবস্থা করা। তবে এখন পর্যন্ত এর একটিও বাস্তবায়নের উদ্যোগ নেয়নি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।

এ বিষয়ে কক্সবাজার ট্রাফিক পুলিশের সহকারী সুপার বাবুল চন্দ্র বণিক বলেন, গত বছর জেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভায় যানজট নিরসনে ট্রাফিক পুলিশের পক্ষ থেকে এই নয়টি সুপারিশ লিখিত আকারে জমা দেয়া হয়। কিন্তু এখন পর্যন্ত এর একটিও বাস্তবায়ন হয়নি। যদি সেই প্রস্তাবের একটিও বাস্তবায়ন হতো তবে শহরের যানজট অনেকটা কমে যেত।

এ ব্যাপারে কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেন বলেন, সেই নয় প্রস্তাবের কথা আমার জানা ছিল না। আপনার কাছ থেকেই প্রথম শুনলাম। আমরাও সম্প্রতি যানজটমুক্ত নগরী গড়তে কিছু উদ্যোগ নিয়েছি। তারপরও তাদের দেয়া প্রস্তাবগুলো বিবেচনা করে দেখা হবে।