আজকের দিন-তারিখ

  • সোমবার ( রাত ৮:০৯ )
  • ২১শে অক্টোবর, ২০১৯ ইং
  • ২২শে সফর, ১৪৪১ হিজরী
  • ৬ই কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ ( হেমন্তকাল )

Archive Calendar

অক্টোবর ২০১৯
সোম মঙ্গল বুধ বৃহস্পতি শুক্র শনি রবি
« জুলাই    
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১  
কক্সবাজার

জেলায় নানা অনুষ্ঠানের মাধ্যমে চৈত্র সংক্রান্তি ও বর্ষ বিদায় (ভিডিও)

54views

স্থানীয় লোকজ সাংস্কৃতিক পরিবেশনার মাধ্যমে চৈত্র সংক্রান্তি ও ১৪২৫ সালের বাংলা বর্ষকে বিদায় দেয়া হয়েছে। আজ বরণ করা হবে ১৪২৬ বাংলা নববর্ষ।


জেলা প্রশাসনের আয়োজনে ও সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের আয়োজনে গতকাল ১৩ এপ্রিল চৈত্র সংক্রান্তি ও বর্ষ বিদায় অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে। শহরের পাবলিক লাইব্রেরির শহীদ দৌলত ময়দানে ১৩ টি সাংস্কৃতিক সংগঠন অনুষ্ঠান পরিবেশন করে। অনুষ্ঠানের শুরুতে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি সত্যপ্রিয় চৌধুরী দোলনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন রাজনৈতিক রেজাউল করিম, নাট্যজন এডভোকেট তাপস রক্ষিত, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক নজিবুল ইসলাম ও সাংস্কৃতিক সংগঠক সাংবাদিক দীপক শর্মা দীপু।
আজ পহেলা বৈশাখ ১৪২৬ বাংলা। সকল না পাওয়ার বেদনা, যা কিছু গ্লানিময়, জীর্ণ শির্ণ দীর্ণ সব কিছু ধুয়ে মুছে প্রকৃতিকে অগ্নি¯œানে সুচি করে তুলতে বছর ঘুরে ফিরে এলো পহেলা বৈশাখ ১৪২৬। পুরানো বছরের সব নিস্ফল সঞ্চয়কে উড়িয়ে দিয়ে নব উদ্যামে নব উদ্যোগে নতুন স্বপ্ন ও প্রত্যাশার আলোয় রাঙ্গানো জীবনের প্রত্যাশায় প্রতি বছর এগিয়ে চলা। বাঙ্গালীদের সকল সকল ধর্ম বর্ণ জাতি গোষ্টির অভিন্ন উৎসব তথা সার্বজনিন অনুষ্ঠান বাংলা বর্ষ বরণ।
বাংলা নববর্ষের এই মহা উৎসব বাঙ্গালীদের সকল কুসংস্কার ও কুপমন্ডুকতার বিরুদ্ধে লড়াই করার প্রেরণা যোগাবে। পহেলাস বৈশাখের সার্বজনিন ও অসাম্প্রদায়িক মহামিলন উৎসব। এই উৎসবকে পালন করতে কক্সবাজারের জেলাবাসী প্রস্তুত।
বর্ষ বিদায় ও বরণ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে কক্সবাজারের বৃহৎ উৎসব পালন করেছে জেলা প্রশাসন । আর এতে সহযোগিতায় রয়েছেন সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট। ১৩ এপ্রিল ২০২৫ বাংলা বর্ষ বিদায় অনুষ্ঠান হয়েছে পাবলিক লাইব্রেরীর শহীদ ময়দানে সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টায়। এতে ১৩ সাংস্কৃতিক সংগঠন লোকজ অনুষ্ঠান পরিবেশন করেছে। এতে বিশেষ আকর্ষণ ছিল দরিয়াসগর সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের আঞ্চলিক গীতি নৃত্যা নাট্যানুষ্ঠান। ১৪ এপ্রিল সকাল ৬ টায় ২০২৬ বাংলা বর্ষকে বরণ করা হবে রবীন্দ্র- নজরুল সংগীত ও বর্ষ বরনের গানের মাধ্যমে। সকাল ৮ টায় নানা মুখোশ, পাপেট আর বর্ণাঢ্য ও আকর্ষনীয় সাজে হবে মঙ্গল শোভাযাত্রা। এরপর শিশু একাডেমি, শিল্পকলা একাডেমি, ঝিনুকমালা খেলাঘরসহ সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের ১২ টি সংগঠনের পরিবেশনা থাকবে। এবার ব্যতিক্রম হচেছ এবারে বৈশাখী উৎসবে থাকছে সাপের খেলা, বানরের খেলা, মোরগের লড়াই, যাদুসহ নানা গ্রামীণ খেলা। স্টলে থাকবে মাটির তৈরি জিনিস, হস্তশিল্প, নাগরদোলা। একই সময়ে সার্কিট হাউসে থাকবে নানা আয়োজনে।
বিকালে সমুদ্র সৈকতে বর্ণাঢ্য আয়োজনে পালনস করা হবে পহেলা বৈশাখ। বীচ বাইক র‌্যালী, জেট স্কী র‌্যালী ও লোকজ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।
জেলাব্যাপী পহেলা বৈশাখ পালন করবে সরকারি, বেসরকারি প্রতিষ্ঠান, রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংসকৃতিক ও পেশাজীবী সংগঠন। কক্সবাজার পৌরসভা এবার পহেলা বৈশাখকে উৎসবমুখর পরিবেশে উদযাপন করছে। সকাল ৮ টায় মঙ্গল শোভাযাত্রা, সকাল সাড়ে ৮ টায় ঐতিহ্যবাহী বাঙ্গালী খাবার পরিবেশন।