আজকের দিন-তারিখ

  • শনিবার ( রাত ১০:০৭ )
  • ২২শে ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ইং
  • ২৮শে জমাদিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরী
  • ১০ই ফাল্গুন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ ( বসন্তকাল )

Archive Calendar

ফেব্রুয়ারী ২০২০
সোম মঙ্গল বুধ বৃহস্পতি শুক্র শনি রবি
« জুলাই    
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯  
আন্তর্জাতিক

পাকিস্তানের যুদ্ধবিমান রুখতে নতুন মিসাইল ভারতের!

459views

পাকিস্তানের অত্যাধুনিক যুদ্ধবিমান রুখতে নিজেদের যুদ্ধবিমানে নতুন ক্ষেপণাস্ত্র সংযোজনের পরিকল্পনা করছে ভারত। এ জন্য ইসরায়েলের কাছ থেকে নতুন ডারবি ক্ষেপণাস্ত্র কিনতে পারে ভারত। ধারণা করা হচ্ছে, ইসরায়েলের তৈরি ডারবি ক্ষেপণাস্ত্র নিজেদের সুখোই যুদ্ধবিমানে সংযোজন করবে ভারত।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি এ-সংক্রান্ত একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। তাতে বলা হয়েছে, দুই বছরের মধ্যে ইসরায়েলের কাছ থেকে পাওয়া অত্যাধুনিক ডারবি ক্ষেপণাস্ত্র যুদ্ধবিমানে যুক্ত করতে পারে ভারত। এই ক্ষেপণাস্ত্র আকাশ থেকে আকাশে ব্যবহার করা যাবে। ভারত নিজেদের বিমান বহরে থাকা সুখোই-৩০ যুদ্ধবিমানে এই ক্ষেপণাস্ত্রগুলো যুক্ত করতে পারে।

ভারতীয় বিমানবাহিনীর একটি সূত্র এনডিটিভিকে বলেছে, এরই মধ্যে স্পাইডার সিস্টেমের (ভূমি থেকে আকাশে নিক্ষেপণযোগ্য) আওতায় ভারত ডারবি ক্ষেপণাস্ত্রের কিছু চালান হাতে পেয়েছে। পরবর্তী পদক্ষেপ হলো সুখোই যুদ্ধবিমানে সেগুলো সংযুক্ত করা।

গত ২৭ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানের অভ্যন্তরে বালাকোটে বিমান হামলা চালিয়েছিল ভারত। পুলওয়ামায় ঘটা জঙ্গি হামলার বদলা হিসেবে ভারত বিমান হামলা চালায়। ওই সময় ভারতের একটি যুদ্ধবিমান ভূপাতিত হয় এবং একজন ভারতীয় বৈমানিককে আটক করে পাকিস্তান। বিশ্লেষকেরা বলছেন, পাকিস্তানের এফ-১৬ যুদ্ধবিমানের সঙ্গে টক্কর দিতে পারেনি ভারতের পুরোনো সুখোই। এ কারণেই নতুন ক্ষেপণাস্ত্রে যুদ্ধবিমান সাজাতে চাইছে ভারত।

এনডিটিভি বলছে, ডারবি ক্ষেপণাস্ত্র সংগ্রহের আরেকটি কারণ হলো, পাকিস্তান এখন মার্কিন এআইএম-১২০ ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবহার করছে। বালাকোটে হামলার সময়ই তা টের পেয়েছে ভারত। মার্কিন অত্যাধুনিক ক্ষেপণাস্ত্রের পাল্টা জবাব দিতেই ভারত ইসরায়েলের ডারবি ব্যবহার করতে চাচ্ছে।

তবে শুধু ডারবিতেই আটকে থাকতে চাইছে না ভারত। এর পাশাপাশি নতুন ‘এএসআরএএএম’ নামের একটি ক্ষেপণাস্ত্রও কেনার প্রক্রিয়া চলছে। আকাশ থেকে আকাশে নিক্ষেপণযোগ্য এই ক্ষেপণাস্ত্রও সুখোই যুদ্ধবিমানে সংযোজন করা হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

এর পাশাপাশি ভারত নিজেরাও ক্ষেপণাস্ত্র তৈরির চেষ্টা করছে। এই ক্ষেপণাস্ত্রের নাম ‘অস্ত্র’। ভারতীয় বিমানবাহিনীর একটি সূত্র বলছে, ‘অস্ত্র’ তৈরির কাজ পুরোদমে চলছে। এরই মধ্যে ৫০টি ক্ষেপণাস্ত্রের কার্যাদেশ দেওয়া হয়েছে।