1. arif.arman@gmail.com : Daily Coxsbazar : Daily Coxsbazar
  2. dailycoxsbazar@gmail.com : ডেইলি কক্সবাজার :
  3. litonsaikat@gmail.com : ডেইলি কক্সবাজার :
  4. shakil.cox@gmail.com : ডেইলি কক্সবাজার :
  5. info@dailycoxsbazar.com : ডেইলি কক্সবাজার : Daily ডেইলি কক্সবাজার
মহেশখালী আ’লীগের একতরফা সম্মেলনের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ নারী পুরুষের ঢল - Daily Cox's Bazar News
রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ০৫:৩৭ অপরাহ্ন
নোটিশ ::
ডেইলি কক্সবাজারে আপনার স্বাগতম। প্রতি মূহুর্তের খবর পেতে আমাদের সাথে থাকুন।
সংবাদ শিরোনাম ::
কট্টরপন্থী ইসলামী দল হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের জন্য চ্যালেঞ্জ: এসএডিএফ কক্সবাজারের আট তরুণ তরুণীকে ‘অদম্য তারূণ্য’ সম্মাননা জানাবে ঢাকাস্থ কক্সবাজার সমিতি Job opportunity বিশ্বের সবচেয়ে বড় আয়না, নাকি স্বপ্নের দেশ! আল-আকসা মসজিদে ইহুদিদের প্রার্থনা বন্ধের আহ্বান আরব লীগের পেকুয়ায় পুলিশের অভিযানে ৮০ হাজার টাকার জাল নোটসহ গ্রেফতার-১ পেকুয়ায় অস্ত্র নিয়ে ফেসবুকে ভাইরাল : অস্ত্রসহ আটক শীর্ষ সন্ত্রাসী লিটন টেকনাফে একটি পোপা মাছের দাম হাঁকাচ্ছেন সাড়ে ৭ লাখ টাকা ! কক্সবাজারের টেকনাফে র‍্যাবের অভিযানে ইয়াবাসহ আটক-১ নিউ ইয়র্কে মেয়র কার্যালয়ে শহীদ মিনার নির্মাণ নিয়ে কনসাল জেনারেলের আলোচনা

মহেশখালী আ’লীগের একতরফা সম্মেলনের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ নারী পুরুষের ঢল

ডেইলি কক্সবাজার ডেস্ক ::
  • আপডেট সময় বুধবার, ২০ জানুয়ারী, ২০১৬
  • ৩০৫ বার পড়া হয়েছে

mk DSC_2953দীর্ঘ ১৪ বছর পর মহেশখালীতে গতকাল বিশাল ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে পাতানো কাউন্সিল ও সমম্মেলন করা হয়েছে। এই ষড়যন্ত্রের কারণে কাউন্সিল ও সম্মেলন বর্জন করেছেন জনপ্রিয় সভাপতি প্রার্থী উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ হোছাইন ইব্রাহীম ও মহেশখালীর কৃতি সন্তান তরুণ নেতৃত্ব সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী উপজেলা যুবলীগের বিপ্লবী সভাপতি মো: শাহজাহান। বারবার দাবীর পরেও বির্তকিত স্থানে সম্মেলন ও কাউন্সিলের ভ্যানু নির্ধারণ করা ও কাউন্সিলার তালিকা নিয়ে নানা তালবাহানার কারণে জনপ্রিয় এই দুই প্রার্থী নির্বাচন বর্জন করে। এসবের পরেও নতুন স্থান নির্ধারণ না করে কোন প্রাকার প্রতিযোগীতা ছাড়া একতরফা ভাবে সম্মেলন ও কাউন্সিল অনুষ্ঠান করার প্রতিবাদে মহেশখালীর বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে বিক্ষুব্ধ আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা। এসব সমসাবেশে বলা হয়, ৩ বছরের জন্য বিগত সময় আনোয়ার পাশাকে সভাপতি ও আজিজুর রহমানকে সাধারণ সম্পাদক করে মহেশখালী আওয়ামী লীগের কমিটি গঠন করা হয়েছিল। কিন্তু দীর্ঘ ১ যুগ বেশী সময় তথা ১৪ বছর পর্যন্ত এই পদ আগলে রেখে ধারাবাহিক ভাবে ক্ষমতার অপব্যবহার করে আসছে এই চক্রটি। এই ১৪ বছরে প্রায় ৩০ বারের মত কমিটি গঠন তথা সম্মেলন ও কাউন্সিলের দিনক্ষণ ঠিক করা হলেও কালো টাকা ও বিভিন্ন অবৈধ পন্থা অবলম্বন করে এই সম্মেলন ও কাউন্সিল ন্যাস্যাত করা হয়। দীর্ঘ দিন থেকে নেতাকর্মীদের অনেকটা জিম্মি করে রেখে আনোয়ার পাশা সিন্ডিকেট নানা অন্যায় অত্যাচার করে আসছিল। এই কমিটির কাছ থেকে কখনো নেতার আচরণ পায়নি এলাকার তৃণমূল নেতাকর্মীরা। প্রতিনিয়িত নানা দুর্ব্যবহার শুনতে হয়েছে তাদের। এইভাবে কোন সাধারণ লোক, পেশাজীবী সম্মানী লোকজন তাদের ক্ষমতার অপব্যবহার থেকে বাদ যায়নি। ত্যাগী নেতাকর্মীদের নামে বিষাদগার থেকে শুরু করে বিরোধী দলে থাকাকালীন আওয়ামী লীগের হরতাল অমান্য করে নিজে সড়কে গাড়ি চালিয়ে চরম সমালোচিত ও পিকেটারদের হাতে চরম ভাবে নাজেহাল হয় আনোয়ার পাশা। অনেক সময় টাকার বিনিময়ে এসব ব্যক্তির দ্বারা দলের সাধারণ নেতাকর্মীরা ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। বহু মামলার আসামি ও জামায়াত বিএনপি দ্বারা ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। বিগত জামায়াত এমপির পিএস থেকে থেকে শুরু করে জামায়াত-শিবির ও সরাসরি জঙ্গিদের বিভিন্ন চকরিতে পদায়ন করা হয়েছে। অনেক স্থানে জামায়াত তৈরির কারখানা বানানো হয়েছে। বিগত ২০০২ সালে ‘বেগ্গিন লইয়্যম’ নামে একটি আলোচিত সেøাগান ছিল। এবার ২০১৬ সালে এসে আওয়ামী লীগের সম্মেলনে সেই সেøাগানের বাস্তবায়ন ঘটিয়ে বিশেষ বিএনপি পরিবারকে লাভবান করা হয়েছে সাধারণ আওয়ামীলীগারদের স্বার্থকে জলাঞ্জলী দিয়ে। সাধারণ নেতাকর্মীরা দীর্ঘ দিন থেকে এই অবস্থা থেকে পরিত্রাণ চাইলেও এই চক্রের কালো টাকার কাছে বারবার সাধারণ নেতাকর্মীদের পরাস্ত হয়েছে। এলাকার তৃণমূল নেতাকর্মীদের পরামর্শে ও তাদেরকে সাথে নিয়ে দীর্ঘ দিন থেকে গণতান্ত্রিক উপায়ে মহেশখালী উপজেলা আওয়ামী লীগের একটি কমিটি গঠনের জন্য আন্দোলন ও তৎপরতা চালিয়ে আসছিল উপজেলা যুবলীগের বিপ্লবী সভাপতি মো: শাহজাহান সহ নেতাকর্মীরা। শেষ পর্যন্ত জোর দাবীর মুখে সম্মেলন করতে বাধ্য হলেও কাউন্সিলার তালিকা ও ভ্যানু নিয়ে ষড়যন্ত্র করা হয়। শাহজাহানের প্রতি নেতাকর্মীদের অটল বিশ্বাস, ভালবাসা ও জনপ্রিয়তাকে ভয় পেয়ে শেষ পর্যন্ত শাহজাহানের তুল্য কোন প্রার্থী না পেয়ে সাধারণ সম্পাদক পদে এমপি আশেক উল্লাহ প্রতিদ্বন্দ্বীতা করে। সভাপতি প্রার্থী আনোয়ার পাশার বাড়ির পাশে তার প্রতিষ্ঠানে, এমপির বাড়ির পাশে ও সিরাজুল মোস্তাফার বাড়ির পাশে ভ্যানু নির্ধারণ করা হয় ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে। লিখিত ভাবে জেলা কমিটিকে আবেদন করার পরেও অদৃশ্য কারণে ভ্যানু পরিবর্তন করা হয়নি। এর প্রতিবাদে গতকাল সকাল থেকে বিভিন্ন স্থান থেকে দলীয় নেতাকমীরা উপজেলা সদরে এসে জমায়েত হয়। এসময় তারা কালো পতকা হাতে বিক্ষোভ মিছিল করে এর প্রতিবাদ জানায়। মিছিলগুলো গোরকঘাটা বাজার সহ বিভিন্ন এলাকা প্রদক্ষিণ করে ঐতিহাসিক বটতলা মিলনায়তনে বিক্ষোভ সমাবেশে মিলিত হন। সমাবেশে সাবেক মেয়র সরওয়ার আজমসহ দলের বিভিন্ন নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন। সমাবেশে সাধারন সম্পাদক প্রার্থী ও উপজেলা যুবলীগ সভাপতি মো: শাহজাহান বলেন, বঙ্গবন্ধু মহিলা কলেজের র্বিতকিত ভ্যানু ছাড়া অন্য যে কোন ভ্যন্যুতে আমরা কাউন্সিল করার দাবী জানিয়েছিলাম। তিনি চ্যানেল করে বলেন, অন্য যে কোন নিরেপেক্ষ ভ্যানুতে কাউন্সিল হলে ৫০টিরও  অধিক ভোটে ব্যাবধানে সাধারন সম্পাদক প্রার্থী এমপি আশেক উল্লাহ পরাজিত হত আমার কাছে। সাহস থাকলে যে কোন নিরাপেক্ষ ভ্যানুতে কাউন্সিল বা ভোটাভোটি করা আহবান জানান তিনি। বিক্ষোভ মিছিল গুলিতে আওয়ামীলীগের নেতা কর্মীদের  অংশ গ্রহন ছিল চোখে পড়ার মত। শত শত মহিলা তাদের দাবী নিয়ে রাস্তায় নজির বিহীন ভাবে বেরিয়ে আসে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2020 Dailycoxsbazar
Theme Customized BY Media Text Communications