1. arif.arman@gmail.com : Daily Coxsbazar : Daily Coxsbazar
  2. dailycoxsbazar@gmail.com : ডেইলি কক্সবাজার :
  3. litonsaikat@gmail.com : ডেইলি কক্সবাজার :
  4. shakil.cox@gmail.com : ডেইলি কক্সবাজার :
  5. info@dailycoxsbazar.com : ডেইলি কক্সবাজার : Daily ডেইলি কক্সবাজার
৫ জানুয়ারিতে গণতন্ত্র রক্ষা নাকি হত্যা: এবার নমনীয় দুদলই - Daily Cox's Bazar News
সোমবার, ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০২:৩১ অপরাহ্ন
নোটিশ ::
ডেইলি কক্সবাজারে আপনার স্বাগতম। প্রতি মূহুর্তের খবর পেতে আমাদের সাথে থাকুন।
সংবাদ শিরোনাম ::
কট্টরপন্থী ইসলামী দল হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের জন্য চ্যালেঞ্জ: এসএডিএফ কক্সবাজারের আট তরুণ তরুণীকে ‘অদম্য তারূণ্য’ সম্মাননা জানাবে ঢাকাস্থ কক্সবাজার সমিতি Job opportunity বিশ্বের সবচেয়ে বড় আয়না, নাকি স্বপ্নের দেশ! আল-আকসা মসজিদে ইহুদিদের প্রার্থনা বন্ধের আহ্বান আরব লীগের পেকুয়ায় পুলিশের অভিযানে ৮০ হাজার টাকার জাল নোটসহ গ্রেফতার-১ পেকুয়ায় অস্ত্র নিয়ে ফেসবুকে ভাইরাল : অস্ত্রসহ আটক শীর্ষ সন্ত্রাসী লিটন টেকনাফে একটি পোপা মাছের দাম হাঁকাচ্ছেন সাড়ে ৭ লাখ টাকা ! কক্সবাজারের টেকনাফে র‍্যাবের অভিযানে ইয়াবাসহ আটক-১ নিউ ইয়র্কে মেয়র কার্যালয়ে শহীদ মিনার নির্মাণ নিয়ে কনসাল জেনারেলের আলোচনা

৫ জানুয়ারিতে গণতন্ত্র রক্ষা নাকি হত্যা: এবার নমনীয় দুদলই

ডেইলি কক্সবাজার ডেস্ক ::
  • আপডেট সময় মঙ্গলবার, ৫ জানুয়ারী, ২০১৬
  • ৩১৭ বার পড়া হয়েছে

BNP1451906916মঙ্গলবার, ৫ জানুয়ারি দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় বার্ষিকী। ওই নির্বাচনে অংশ নিয়ে টানা দ্বিতীয়বারের মতো ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত আওয়ামী লীগ এ দিনটিকে পালন করছে ‘গণতন্ত্রের বিজয় দিবস’ হিসেবে। অপরদিকে নির্বাচন বর্জনকারী বিএনপি দিনটিকে পালন করছে ‘গণতন্ত্র হত্যা দিবস’ হিসেবে। দুই দলই এ উপলক্ষে পৃথক কর্মসূচি নিয়ে রাজপথে থাকছে। রাজধানীসহ সারাদেশে কর্মসূচি পালন করছে।

গত ২০১৪ সালে দেশে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অধীনে অনুষ্ঠিত ওই নির্বাচনে নিরঙ্কুশ সংখ্যা গরিষ্ঠতা অর্জন করে আওয়ামী লীগ টানা দ্বিতীয় বারের মতো ক্ষমতা গ্রহণ করে। অপরদিকে ওই নির্বাচনকে একতরফা আখ্যায়িত করে বিএনপি ‍তা বয়কট ও প্রতিহতের ঘোষণা দিয়ে ব্যর্থ হয়। এরপর নির্বাচনের প্রথম বর্ষপূর্তির দিনটিতেও ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ ও তার প্রধান রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ বিএনপি যথাক্রমে ‘গণতন্ত্রের বিজয় দিবস’ ও ‘গণতন্ত্র হত্যা দিবস’ পালনের নামে রাজধানীতে পাল্টাপাল্টি কর্মসূচির ডাক দেয়। দুই দলের যুদ্ধাংদেহী অবস্থানের জের ধরে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ রাজধানীতে সব ধরনের সভা-সমাবেশ নিষিদ্ধ ঘোষণা করে। প্রতিবাদে বিএনপি লাগাতার হরতাল-অবরোধের ডাক দেয়। টানা ৯২ দিনের কর্মসূচিতে শতাধিক প্রাণহানির ঘটনা ঘটে।

গতবারের মতো দুই দলই রাজপথে এবারও থাকলেও উভয়ই বেশ নমনীয়। নেই গতবারের মতো রাখঢাক ও ডামাডোল। গত বছর দুই দল সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে কর্মসূচি পালনের বিষয়ে অনঢ় থাকলেও এবার এ স্থলে সমাবেশের অনুমতি না পেয়ে নিজ নিজ দলীয় কার্যালয় প্রাঙ্গণে অনুমতির জন্য সরকারের সংশ্লিষ্ট দপ্তরে আবেদন করে। এর প্রেক্ষিতে কিছু শর্ত সাপেক্ষে তাদের অনুমতিও ইতোমধ্যে দেওয়া হয়েছে। দুই দলের অনঢ় অবস্থানের প্রেক্ষাপটে ২০১৫ সালের ৫ জানুয়ারির আগের দিন ডিএমপির পক্ষ থেকে রাজধানীতে অনির্দিষ্টকালের জন্য সভা-সমাবেশের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হলেও এবার পুলিশ প্রশাসনও কিছুটা নমনীয় রয়েছে। পুলিশের পক্ষ থেকেও শর্ত মেনে সমাবেশ করার বিষয়ে সোমবার বিকালে দুই দলকে অনুমতি দেওয়া হয়েছে। বন্দরনগরী চট্টগ্রামেও দুই দলকে সমাবেশ করার অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

ঢাকায় দুই দলকেই বেলা ২টা থেকে ৫টার মধ্যে সমাবেশ শেষ করতে হবে বলে উল্লেখ করে সোমবার নিজের কার্যালয়ে পুলিশ কমিশনার মো.আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, রাজনৈতিক কর্মসূচির আড়ালে কেউ যদি জননিরাপত্তা বিঘ্নিত করতে চায় তাদের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী শক্ত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। জননিরাপত্তার খাতিরে সব দলকেই সমানভাবে দেখব।

বিএনপিও রাজনৈতিক পরিবেশ শান্ত রাখতে চায় বলে আগেভাগে জানান দিয়েছে। শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি পালনের আশ্বাস দিয়ে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সোমবার এক ব্রিফিংয়ে বলেন, আমরা স্পষ্ট করে বলতে চাই, ৫ জানুয়ারির জনসভা হবে সম্পূর্ণভাবে শান্তিপূর্ণ। আমরা এ-ও নিশ্চিতভাবে বলতে চাই, আমরা সংঘর্ষের রাজনীতি করি না; আমরা কোনও সাংঘর্ষিক কর্মসূচিতে যাব না।

‘আওয়ামী লীগের কয়েকজন নেতা’ অযথা বিএনপির জনসভা নিয়ে ‘রাজনৈতিক উত্তাপ’ সৃষ্টি করার চেষ্টা করছেন বলেও তিনি অভিযোগ করেন।

এদিকে আওয়ামী লীগও সর্বশেষ প্রেক্ষাপটে তাদের কঠোর অবস্থান থেকে সরে এসেছে। ইতোপূর্বে সোহরাওয়ার্দীতে প্রধান জমায়েত ছাড়াও রাজধানী ১৮টি পয়েন্টে অবস্থান নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছিল। কিন্তু সোমবার তারা এ অবস্থান পরিবর্তন করে রাজধানীতে দুইটি সমাবেশ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তারা বঙ্গবন্ধু এভিনিউস্থ দলীয় কার্যালয় ও ৩২ ধানমন্ডির রাসেল স্কয়ারে সমাবেশ করবে বলে দলের দপ্তর সম্পাদক আবদুস গোলাপ স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

রাজধানীর দুইটি স্পট ছাড়াও প্রতিটি জেলা, উপজেলা ও থানা সদরে সমাবেশ ও আনন্দর‌্যালি করার ঘোষণা দিয়েছে আওয়ামী লীগ।

২টি স্পটে সমাবেশ করার কারণ জানতে চাইলে দলটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব উল আলম হানিফ বলেছেন, জনদুর্ভোগের বিষয়টি বিবেচনায় রেখে এবং ডিএমপির অনুরোধে তারা ১৮টির পরিবর্তে ২টি স্পটে সমাবেশ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2020 Dailycoxsbazar
Theme Customized BY Media Text Communications