আজকের দিন-তারিখ

  • রবিবার ( রাত ১১:০৫ )
  • ১৮ই আগস্ট, ২০১৯ ইং
  • ১৭ই জিলহজ্জ, ১৪৪০ হিজরী
  • ৩রা ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ ( শরৎকাল )

Archive Calendar

আগস্ট ২০১৯
সোম মঙ্গল বুধ বৃহস্পতি শুক্র শনি রবি
« জুলাই    
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১  
কক্সবাজার

৭ বছর ধরে বিচ্ছিন্ন টেকনাফ-শাহপরীর দ্বীপের সড়ক

24views

সাত বছর আগে ক্ষতিগ্রস্ত শাহপরীর দ্বীপের সড়কটি এখনো বিচ্ছিন্ন। টেকনাফ পৌর শহর থেকে ১৩ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত দ্বীপের পূর্বে নাফ নদী, দক্ষিণ ও পশ্চিমে বঙ্গোপসাগর এবং উত্তরে সমতল ভূমি। এই সড়কের সাবরাং হারিয়াখালী মুখ থেকে শাহপরীর দ্বীপ পর্যন্ত প্রায় পাঁচ কিলোমিটার সড়ক বিলিন হয়ে যায়। ফলে দ্বীপের ৪০ হাজার মানুষ চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন। 

জানা গেছে, ২০১২ সালের ২২ জুলাই সামুদ্রিক জলোচ্ছ্বাসে শাহপরীর দ্বীপের পশ্চিমাংশে বেড়িবাঁধ ভেঙে কয়েকশ’ বসত বাড়ি সাগরে বিলীন হয়ে যায়। এ সময় জোয়ারের স্রোতে শাহপরীর দ্বীপ সড়কটিও ভেঙে যায়। এই সড়কে একটি ব্রিজ ও কয়েকটি কালভার্ট ধসে পড়ে। এ কারণে দ্বীপবাসীর জীবনে চরম দুর্ভোগ নেমে আসে। শুষ্ক মৌসুমে নাফ নদীর বাঁধ দিয়ে চলাচল করলেও বর্ষায় একমাত্র ভরসা নৌকা।

এদিকে শাহপরীর দ্বীপে ভাঙা বেড়িবাঁধের সড়কটিও সাত বছর ধরে সংস্কার করা হয়নি। গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে ভাঙা বাঁধ জোড়া লাগলেও সড়ক সংস্কারে এখনো কোনো উদ্যোগ নেওয় হয়নি।

পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) সূত্রে জানা যায়, শাহপরীর দ্বীপ রক্ষায় ১০৬ কোটি টাকা ব্যয়ে ২ দশমিক ৬৪৫ কিলোমিটার বেড়িবাঁধ নির্মাণ কাজ চলছে। সমুদ্রের করাল গ্রাস থেকে রক্ষায় বাঁধের উচ্চতা সাড়ে ছয় মিটার, প্রস্থ সাড়ে চার মিটার এবং বাঁধে পাথরের বড় সিসি ব্লক করা হয়েছে। বাঁধের সংস্কার কাজ দ্রুত এগিয়ে চলছে। ইতোমধ্যে ৭০ ভাগ কাজ শেষ হয়েছে। আগামী মার্চের মধ্যে শেষ করা হবে। ফলে ভাঙ্গা সড়ক সংস্কারে আর কোনো অসুবিধা নেই।

সড়ক ও জনপথ অধিদফতর (সওজ) বিভাগ সূত্রে জানা যায়, শাহপরীর দ্বীপ সড়কসহ ৮ কিলোমিটার সড়ক সংস্কারের জন্য পুনরায় টেন্ডার আহ্বান করা হচ্ছে। এর আগে করা টেন্ডারটি বাতিলের প্রক্রিয়াধীন। এর আওতায় ব্রিজ ও একাধিক বক্স কালভাট রয়েছে।

শাহপরীর দ্বীপ রাক্ষা ও উন্নয়ন কমিটির সভাপতি মাস্টার জাহেদ হোসেন বলেন, ‘ভাঙা সড়কের কারণে সাত বছর ধরে দ্বীপের মানুষ কষ্টে আছেন। গত বছর ভাঙা বাঁধের মুখ বন্ধ করলেও এখনো পর্যন্ত সড়কটি সংস্কার হয়নি। তাই দ্রুত সড়ক সংস্কারের দাবি জানাচ্ছি।’

সাবরাং ইউপি চেয়ারম্যান নূর হোসেন বলেন, ‘শাহপরীর দ্বীপে ভাঙা বাঁধের মুখ বন্ধ করে পানি প্রবেশ বন্ধ করা হয়েছে। বাঁধের কাজও দ্রুত গতিতে চলছে। তবে ভাঙা সড়ক সংস্কারের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে বলা হয়েছে। খুব শিগগিরই সড়কের কাজটি শুরু হবে এবং দ্বীপের মানুষের কষ্ট লাগব হবে।’

এ প্রসঙ্গে সওজ কক্সবাজারের নির্বাহী প্রকৌশলী পিন্টু চাকমা বলেন, ‘টেকনাফ-শাহপরীর দ্বীপ সড়কের ৮ কিলোমিটার সড়ক সংস্কারে ৫৫ কোটি টাকা ব্যয়ে প্রকল্পের পুনরায় টেন্ডার আহ্বান করা হচ্ছে। এই সড়কে একটি ব্রিজ ও ১২টি বক্স কালভাট নির্মাণ করা হবে। এ কাজটি বাস্তবায়নের জন্য আগে টেন্ডার আহ্বান করে ঠিকাদার নিয়োগ করা হয়েছিল। সঠিক সময়ে কাজ না করায় ওই টেন্ডারটি বাতিল করা হচ্ছে।’

তবে পুনরায় টেন্ডার শেষে দ্রুত এই সড়কের কাজ করা হবে বলেও জানান তিনি।