সংবাদ শিরোনাম

শহরে এক পরিবারে ৪ লাশ উদ্ধার আত্মহত্যার ধারণা

কক্সবাজার শহরের গোলদিঘির পাড়স্থ শিয়াইল্লা পাহাড়  এলাকায় স্বামী, স্ত্রী ও দু’সন্তান সহ চার জনের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। বুধবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে বাড়ির দরজা ভেঙে তাদের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহতরা হলেন- গোলদীঘির পাড় এলাকার মৃত ননী গোপাল চৌধুরীর পুত্র সুমন চৌধুরী (৩০), তার স্ত্রী বেবি চৌধুরী (২৫) এবং তাদের দু’মেয়ে অবন্তিকা (৫) ও জুঁতিকা (৩)। পুলিশ ধারণা করছে স্ত্রী ও সন্তানদের হত্যা করে স্বামী আত্মহত্যা করেছে।

প্রতিবেশীরা ধারণা করছেন, ব্যবসায় লোকসানের কারণে অনেক দেনা ছিলো সুমন চৌধুরীর। বিভিন্ন সময় পাওনাদারের সাথে তার বাক-বিতন্ডাসহ বাড়াবাড়ি হতো। এই্ জন্য তিনি প্রায় টেনশন ও হীনমন্যতায় ভুগতেন। হয়তো এ্ই জন্য তিনি নিজে আত্মহত্যা করে স্ত্রী ও সন্তানদের বিষ প্রয়োগে হত্যা করেন।

স্থানীয় দুলাল দাস জানান, সকাল থেকে ওই বাড়িতে কোনও মানুষের সাড়া না পেয়ে স্থানীয়দের মনে সন্দেহ জাগে। এরপর সেখানে গিয়ে দরজা ভেতর থেকে লাগানো অবস্থায় পাওয়া যায়। সারা দিন দরজা ভেতর থেকে লাগানো দেখে কৌতুহল জাগে। পরে দরজা ভেঙে ঘরের ভেতর ৪টি লাশ পাওয়া যায়। স্ত্রী বেবী চৌধুরী এবং দুই মেয়ে অন্তিকা ও জ্যোতি চৌধুরীর লাশ ঘরে শোয়ানো অবস্থায় ছিল।

কক্সবাজার সদর মডেল থানার ওসি রনজিত বড়ুয়া ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ফ্যানের সাথে ঝুলন্ত অবস্থায় সুমন চৌধুরীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়। বিছানায় শায়িত অবস্থায় দুই সন্তানের সাথে বেবি চৌধুরীর লাশ পাওয়া যায়।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. আফরুজুল হক টুটুল বলেন, মৃতদেহ গুলো উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে। মৃত্যুর বিস্তারিত কারণ অনুসন্ধান করা হচ্ছে। ময়নাতদন্তের পরে মৃত্যুর কারণ নিশ্চত হওয়া যাবে বলে জানান তিনি।

খবর পেয়ে স্থানীয়রা ঘটনাস্থলে ছূটে যান।

Editor in Chief : Sayed Shakil
Office: Evan plaza, sador model thana road, cox’sbazar-4700. Email: dailycoxsbazar@gmail.com / phone: 01819099070
অনুমতি ছাড়া অথবা তথ্যসূত্র উল্লেখ না করে এই ওয়েব সাইট-এর কোন অংশ, লেখা বা ছবি নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনী