সংবাদ শিরোনাম

আগামী নির্বাচনে কী হবে তা এখনই বোঝা যাচ্ছে : মওদুদ

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেছেন, মেয়র পদে উপনির্বাচন নিয়ে উচ্চ আদালতের স্থগিতাদেশে রাষ্ট্রপক্ষের নীরবতাই প্রমাণ করে সরকার ও নির্বাচন কমিশনের যোগসাজশে এই নির্বাচন স্থগিত হয়েছে। আমার বলতে হবে, তারা একই পথের যাত্রী এই ব্যাপারে। তারা হেরে যাবেন বলেই এ কাজগুলো করেছেন। আগামী নির্বাচনে কী হতে যাচ্ছে তা এখনই বোঝা যাচ্ছে।

আজ শুক্রবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে এক অনুষ্ঠানে বিএনপির স্থায়ী কমিটির এই সদস্য বলেন, সরকার যদি সত্যিই নির্বাচন চাইত, তাহলে হাই কোর্টের স্থগিতাদেশের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষ আপিল বিভাগে যেত।

মওদুদ আহমদ বলেন, এখন তারা হাত-পা গুটিয়ে ফেলেছেন। এমন একটা ভাব, যে এই স্থগিতাদেশ একটা স্থায়ী বিষয়ে, এর বিরুদ্ধে যেন আপিল করা যায় না।

বিএনপির এ নেতা আরো বলেন, আওয়ামী লীগ আমাদের বন্দি করে রেখেছে। আমরা সভা-সমাবেশ করতে পারি না। একটা ঘরোয়া অনুষ্ঠানও আমাদের করতে দেওয়া হয় না।

বিএনপি সেদিনই অভিযোগ তোলে, ঢাকার সিটি নির্বাচন স্থগিত হয়েছে ‘সরকারের ইঙ্গিতে’। অন্যদিকে আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে বলা হয়, আদালতের আদেশের পেছনে সরকারের কোনো ভূমিকা নেই।

হাই কোর্টের ওই আদেশের বিরুদ্ধে আপিল করা হবে কি না- সে বিষয়ে স্পষ্ট কিছু জানায়নি নির্বাচন কমিশন। ইসির আইনজীবী শুধু বলেছেন, কমিশনের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে। এ ক্ষেত্রে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমের ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন মওদুদ।

সংগঠনের সভাপতি সাইফুল আলমের সভাপতিত্বে জাগপা সভানেত্রী অধ্যাপিকা রেহানা প্রধান, সহসভাপতি ব্যারিস্টার তাসমিয়া প্রধান, সাধারণ সম্পাদক খন্দকার লুৎফর রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আসাদুর রহমান আসাদ আলোচনা সভায় বক্তব্য দেন।

Editor in Chief : Sayed Shakil
Office: Evan plaza, sador model thana road, cox’sbazar-4700. Email: dailycoxsbazar@gmail.com / phone: 01819099070
অনুমতি ছাড়া অথবা তথ্যসূত্র উল্লেখ না করে এই ওয়েব সাইট-এর কোন অংশ, লেখা বা ছবি নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনী