সংবাদ শিরোনাম

রোহিঙ্গাদের দেখতে আসছেন জাতিসংঘ মহাসচিব ও বিশ্বব্যাংক প্রেসিডেন্ট

রোহিঙ্গাদের দুঃখ-দুর্দশা দেখতে জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস ও বিশ্বব্যাংকের প্রেসিডেন্ট জিম ইয়ং কিম তিন দিনের সফরে বাংলাদেশে আসছেন।

অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগ সূত্রে জানা যায়, আগামী ৩০ জুন ঢাকায় আসবেন তারা। ২ জুলাই পর্যন্ত অবস্থান করবেন।

বিশ্বব্যাংকের প্রেসিডেন্টের এটি দ্বিতীয় সফর হলেও জাতিসংঘের মহাসচিব এই প্রথমবারের মতো বাংলাদেশে আসছেন। আন্তর্জাতিক দারিদ্র্য দিবস উপলক্ষে গত বছরের জুনে প্রথম ঢাকা সফর করেছিলেন বিশ্বব্যাংকের বর্তমান প্রেসিডেন্ট। বাংলাদেশে দারিদ্র্য বিমোচনে অভূতপূর্ব সাফল্য অর্জনের স্বীকৃতি দিতে ঢাকায় আসেন তিনি।

সূত্র বলছে, গুরুত্বপূর্ণ এ দুই ব্যক্তি ঢাকায় আসার পর কক্সবাজারে রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করবেন। এ ছাড়া প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, অর্থমন্ত্রী ও পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করবেন।

রোহিঙ্গাদের ওপর ইতিহাসের বর্বরোচিত নির্যাতনকে ‘জাতিগত নিধন’ হিসেবে আখ্যায়িত করেছে জাতিসংঘ। সংস্থাটির মহাসচিব রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতনের জন্য মিয়ানমার সামরিক জান্তার কঠোর সমালোচনা করেন এবং রোহিঙ্গাদের মানবিক সহায়তার জন্য বিশ্ববাসীকে পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানান। এখন তিনি বাংলাদেশে এসে তাদের নির্যাতনের কথা শুনবেন।

রোহিঙ্গাদের সহায়তায় তাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিশ্বনেতারদের আহ্বান জানিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রীর আহ্বানে সাড়া দিয়ে এরইমধ্যে অনেক দেশ ও দাতা সংস্থা এগিয়ে এসেছে। বিশ্বব্যাংকও রোহিঙ্গাদের সহায়তার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। গত এপ্রিলে যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটন ডিসিতে বিশ্বব্যাংক ও আইএমএফের বসন্তকালীন বৈঠকে নির্যাতিত রোহিঙ্গাদের সাহায্যের প্রতিশ্রুতি দেয় বিশ্বব্যাংক। একই সঙ্গে অন্যান্য দাতা সংস্থা ও দেশ যৌথভাবে সাহায্যের আশ্বাস দিয়েছে। বিশ্বব্যাংক বলেছে, ৫০ কোটি ডলার অনুদান দেবে রোহিঙ্গাদের পুনর্বাসনে। যদিও ওই অর্থ সরকার এখনও পায়নি।

অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগ সচিব কাজী শফিকুল আযম সমকালকে বলেন, বিশ্বব্যাংকের প্রেসিডেন্ট ও জাতিসংঘের মহাসচিব ঢাকায় আসার পর রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করবেন। এ ছাড়া ঢাকায় অবস্থানকালে সরকারের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বৈঠক করবেন।

বৈঠকের আলোচ্যসূচি সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন, বিষয়টি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সমন্বয় করছে।

শিগগিরই ১০ কোটি ডলার দেবে বিশ্বব্যাংক

সূত্র জানায়, রোহিঙ্গাদের পুনর্বাসনে ১০ কোটি ডলার বা সমপরিমাণ ৮৫০ কোটি টাকা শিগগিরই পাওয়া যাবে। অনুদান হিসেবে এই অর্থ দেবে সংস্থাটি। কয়েক মাস আগে বিশ্বব্যাংকের একটি মিশন বাংলাদেশ সফরে আসার পর বিভিন্ন রোহিঙ্গা শিবির পরিদর্শন করে। এর পর একটি প্রতিবেদন তৈরি করে ওয়াশিংটনে বিশ্বব্যাংকের প্রধান কার্যালয়ে জমা দেয়। ওই প্রতিবেদনের সুপারিশের আলোকে প্রাথমিকভাবে ১০ কোটি ডলার দিতে সম্মত হয়েছে সংস্থাটি।

ইআরডি সূত্র বলেছে, এ মাসের শেষে বিশ্বব্যাংকের বোর্ড সভায় এ প্রস্তাব অনুমোদনের জন্য উঠবে। তার পরই টাকা ছাড় হবে। স্থানীয় সরকার, খাদ্য ও দুর্যোগ, স্বাস্থ্যসহ বিভিন্ন মন্ত্রণালয় রোহিঙ্গাদের পুনর্বাসনে কাজ করছে। ওই অর্থ পাওয়া গেলে বিভিন্ন প্রকল্পের মাধ্যমে রোঙ্গিাদের স্বাস্থ্য ও স্যানিটেশন, বিশুদ্ধ পানি সরবরাহের কাজে ব্যয় করা হবে।

Editor in Chief : Sayed Shakil
Office: Evan plaza, sador model thana road, cox’sbazar-4700. Email: dailycoxsbazar@gmail.com / phone: 01819099070
অনুমতি ছাড়া অথবা তথ্যসূত্র উল্লেখ না করে এই ওয়েব সাইট-এর কোন অংশ, লেখা বা ছবি নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনী