সংবাদ শিরোনাম

শপথ গ্রহণ করলেন মন্ত্রিসভার সদস্যরা

কক্সবাজার ডেস্ক :

সোমবার বিকেল ৩টা ২০ মিনিটে  বঙ্গভবনে উপস্থিত হন শেখ হাসিনা। বিকেল ৩টা ৪০ মিনিটে বঙ্গভবনের দরবার হলে শেখ হাসিনা প্রথমে পদের শপথ ও পরে গোপনীয়তার শপথ গ্রহণ করেন। এরপর তিনি পদের শপথ ও গোপনীয়তার শপথ বইতে স্বাক্ষর করেন। পরে তাকে ফুল দিয়ে অভিনন্দন জানান তিনবাহিনীর প্রধানবৃন্দ ও বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ রেহানা।

এর পরপরই ৩টা ৪৫ মিনিটে ২৪ জন পূর্ণমন্ত্রী রাষ্ট্রপতির কাছে প্রথমে পদের শপথ ও পরে গোপনীয়তার শপথ গ্রহণ করেন। পরে তারাও পদের শপথ ও গোপনীয়তার শপথ বইতে স্বাক্ষর করেন। এরপর ১৯ জন প্রতিমন্ত্রী রাষ্ট্রপতির কাছে প্রথমে পদের শপথ ও পরে গোপনীয়তার শপথ গ্রহণ করেন। পরে তারাও পদের শপথ ও গোপনীয়তার শপথ বইতে স্বাক্ষর করেন।

বিকেল সাড়ে তিনটায় শপথ অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তিলাওয়াত করেন বঙ্গভবন জামে মসজিদের পেশ ইমাম মাওলানা মোহাম্মদ সাইফুল কাদির।

শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় সংসদের স্পিকার শিরিন শারমিন চৌধুরী, প্রধান বিচারপতি, সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতিগণ, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ রেহানা, সদ্য বিদায়ী মন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী, ইউসূফ হোসেন হুমায়ন, নির্বাচন কমিশন সচিব হেলাল উদ্দিন প্রমুখ।

পূর্ণমন্ত্রী হলেন যারা : ওবায়দুল কাদের (সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়), আ ক ম মোজাম্মেল হক (মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়), ড. মোহাম্মদ আবদুর রাজ্জাক (কৃষিমন্ত্রী), আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল (স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়), মোহাম্মদ হাছান মাহমুদ (তথ্য মন্ত্রণালয়), আনিসুল হক (আইন বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়), আ হ ম মুস্তফা কামাল (অর্থ মন্ত্রণালয়), মোহাম্মদ তাজুল ইসলাম (স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়), ডা. দীপু মনি ( শিক্ষা মন্ত্রণালয়), এ কে আবদুল মোমেন (পররাষ্ট্র বিষয়ক মন্ত্রণালয়), এম এ মান্নান (পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়), নুরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন (শিল্প মন্ত্রণালয়), গোলাম দস্তগীর গাজী (বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়), জাহিদ মালেক (স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়), সাধন চন্দ্র মজুমদার (খাদ্য মন্ত্রণালয়), টিপু মুন্সী (বাণিজ্য মন্ত্রণালয়), নুরুজ্জামান আহমেদ (সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়), শ ম রেজাউল করিম (গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়), শাহাব উদ্দিন (পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়), বীর বাহাদুর উ শৈ সিং (পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়), সাইফুজ্জামান চৌধুরী (ভূমি মন্ত্রণালয়), মোহাম্মদ নুরুল ইসলাম সুজন (রেলপথ মন্ত্রণালয়), স্থপতি ইয়াফেস ওসমান- টেকনোক্র্যাট (বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়) এবং মোস্তফা জব্বার- টেকনোক্র্যাট (ডাক টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়)।

প্রতিমন্ত্রী হলেন যারা : কামাল আহমেদ মজুমদার (শিল্প), ইমরান আহমেদ (প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান), মোহাম্মদ জাহিদ আহসান রাসেল (যুব ও ক্রীড়া), নসরুল হামিদ (বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ), মোহাম্মদ আশরাফ আলী খান খসরু (মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ), মন্নুজান সুফিয়ান (শ্রম ও কর্মসংস্থান), খালিদ মাহমুদ চৌধুরী ( নৌ পরিবহন), মোহাম্মদ জাকির হোসেন (প্রাথমিক ও গণশিক্ষা), মোহাম্মদ শাহরিয়ার আলম (পররাষ্ট্র), জুনাইদ আহমেদ পলক (তথ্য ও যোগাযোগ প্রযু্ক্তি বিভাগ), ফরহাদ হোসেন (জনপ্রশাসন), স্বপন ভট্টাচার্য (স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়), জাহিদ ফারুক (পানি সম্পদ), মোহাম্মদ মুরাদ হাসান (স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ), শরীফ আহমেদ (সমাজকল্যাণ), কে এম খালিদ (সংস্কৃতি বিষয়ক), ডা. মো. এনামুর রহমান (দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ), মোহাম্মদ মাহবুব আলী (বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন) এবং শেখ মোহাম্মদ আবদুল্লাহ- টেকনোক্র্যাট (ধর্ম বিষয়ক)।

উপমন্ত্রী হলেন যারা : বেগম হাবিবুন নাহার (পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন), এ কে এম এনামুল হক শামীম (পানি সম্পদ) এবং মহিবুল হাসান চৌধুরী (শিক্ষা)।

Editor in Chief : Sayed Shakil
Office: Evan plaza, sador model thana road, cox’sbazar-4700. Email: dailycoxsbazar@gmail.com / phone: 01819099070
অনুমতি ছাড়া অথবা তথ্যসূত্র উল্লেখ না করে এই ওয়েব সাইট-এর কোন অংশ, লেখা বা ছবি নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনী