সংবাদ শিরোনাম

পুলিশের বিরুদ্ধে ধর্ষণের সত্যতা পেয়েছে তদন্ত কমিটি, মামলা

সারাদেশ ডেস্ক :মানিকগঞ্জের সাটুরিয়ায় দুই পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে এক নারীকে দু’দিন আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগের প্রাথমিক সত্যতা পেয়েছেন তদন্ত কমিটির সদস্যরা। ওই ঘটনায় সোমবার সন্ধ্যায় ভুক্তভোগী নারী বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছেন।

সাটুরিয়া থানার উপপরিদর্শক (এসআই) সেকেন্দার হোসেন ও সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) মাজহারুল ইসলামের বিরুদ্ধে দু’দিন আটকে রেখে ধর্ষণ ও মাদক সেবন করানোর অভিযোগ করেন সাভারের এক নারী। রোববার জেলা পুলিশ সুপার অভিযোগটি পেয়ে মানিকগঞ্জ সদর সার্কেল অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হাফিজুর রহমান ও ডিএসবির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হামিদুর রহমান সিদ্দীকীকে বিষয়টি তদন্তের দায়িত্ব দেন।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হাফিজুর রহমান জানান, নির্যাতনের শিকার নারী তদন্ত কমিটির কাছে ঘটনার বর্ণনা দিয়েছেন। দিনভর তদন্তে অভিযোগের প্রাথমিক সত্যতা পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় ওই নারীকে মামলা করার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। তিনি সোমবার সন্ধ্যায় পুলিশ কর্মকর্তা সেকেন্দার হোসেন ও মাজহারুল ইসলামকে আসামি করে মামলা দায়ের করেছেন। সাটুরিয়া থানার পরিদর্শক আবুল কালাম আজাদকে মামলাটি তদন্ত করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তিনি আরও বলেন, ধর্ষণের অভিযোগ প্রমাণ করতে ওই নারীর মেডিকেল পরীক্ষাসহ প্রয়োজনে ডিএনএ পরীক্ষাও করা হবে।

ভুক্তভোগী নারী জানান, রোববার পুলিশ সুপারের কাছে লিখিত অভিযোগ দেওয়ার পর সোমবার বিকেলে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে পুলিশের তদন্ত কমিটি। পরে সোমবার সন্ধ্যায় তিনি বাদী হয়ে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন।

সাটুরিয়ার ওসি আমিনুর ইসলাম মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, আসামিরা এখন পুলিশ লাইন্সে সংযুক্ত রয়েছেন। তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

Editor in Chief : Sayed Shakil
Office: Evan plaza, sador model thana road, cox’sbazar-4700. Email: dailycoxsbazar@gmail.com / phone: 01819099070
অনুমতি ছাড়া অথবা তথ্যসূত্র উল্লেখ না করে এই ওয়েব সাইট-এর কোন অংশ, লেখা বা ছবি নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনী