সংবাদ শিরোনাম

মোদি বললেন আমিই ফিরছি, প্রিয়াঙ্কা বললেন পতন

ভারতের ষষ্ঠ ধাপের ভোটের দিন দিল্লিতে ভোট দিয়ে জাতীয় কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী বললেন, ‘প্রধানমন্ত্রী মোদি ঘৃণার রাজনীতি করছেন। আমরা ভালোবাসার রাজনীতি করি। তাই এবার ভালোবাসাই জিতবে।’ কংগ্রেস সাধারণ সম্পাদক প্রিয়াঙ্কা গান্ধী এদিন স্বামী রবার্ট ভদ্রকে নিয়ে ভোট দেন। তিনি বলেন, ‘আজ গোটা দেশের ভোটের প্রকৃতি থেকে আমি নিশ্চিত বিজেপির পরাজয় ঘটছে।’ অন্যদিকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি উত্তর প্রদেশের কুশীনগরে এক জনসভায় বলেন, ‘এবার আবার মোদি সরকার।’

গতকাল ছিল ভারতের সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনের ষষ্ঠ পর্বের ভোট গ্রহণ। ভোট নেওয়া হয় সাত রাজ্যের ৫৯টি আসনে। যার মধ্যে রাজধানী দিল্লির ৭টি আসন ছাড়াও ছিল উত্তর প্রদেশের (১৪), হরিয়ানা (১০), পশ্চিমবঙ্গ (৮), বিহার (৮), মধ্যপ্রদেশ (৮) ও ঝাড়খে র (৪)টি আসন। ভোট শুরু হয় সকাল ৭টায়, চলে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত। কিন্তু দুপুর ১২টার মধ্যেই ভোটের লাইনে দাঁড়িয়ে ভোট দিতে দেখা যায় রাজনীতিবিদ, খেলোয়াড়সহ বিভিন্ন জগতের সেলিব্রেটিদের। আর সেই সঙ্গে কয়েক কোটি সাধারণ মানুষ তো ছিলই।ছয় বছর পর দিল্লিতে ভোট দিলেন সাবেক রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জি। তিনি দুপুরে কামরাজ মার্গে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ভোট দেন। তবে সাংবাদিকদের কাছে কোনো মন্তব্য করেননি তিনি। সস্ত্রীক রাষ্ট্রপতি ভবনের বুথে ভোট দিলেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ। ভোট দিয়েছেন ইউপিএ চেয়ারপারসন সোনিয়া গান্ধী। দিল্লিতে ভোট দিলেন ভারতের ক্রিকেট দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলি। এখন পর্যন্ত পশ্চিমবঙ্গ ব্যতীত অন্য কোনো রাজ্য থেকে হিংসার খবর আসেনি। সেখানে দুজনের মৃত্যু সংবাদ পাওয়া গেছে। প্রিয়াঙ্কা বলেন, ‘ভারতের জনতা কেন্দ্রের মোদি সরকারের ওপর ক্ষুব্ধ। তাই আমি নিশ্চিত বিজেপি সরকারের পতন হচ্ছে।’ তিনি এও বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী মোদি প্রকৃত ইস্যু থেকে সরে আবোল-তাবোল বকছেন। মানুষের ক্ষোভ উত্তর প্রদেশে দৃশ্যত স্পষ্ট।’ কলকাতায় এক ভাষণে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি বলেছেন, ‘উত্তর প্রদেশে বিজেপি এবার ১৭ আসন পাবে।’ প্রধানমন্ত্রী মোদি গতকাল এক সাক্ষাৎকারে বলেন, ‘তিনি ৪৫ বছর তপস্যা করেছেন বলেই আজ প্রধানমন্ত্রী হতে পেরেছেন।’ সেই জবাবে প্রিয়াঙ্কা বলেন, ‘উনি যদি তপস্যাই করতেন তাহলে এত ঘৃণার রাজনীতি করতেন না।’ তিনি ও তার স্বামী লোধি এস্টেটে ভোট দেন। রাহুল গান্ধী ভোট দেন তার সরকারি নিবাস তুঘলক লেনের কাছে আওরঙ্গজেব লেনের বুথে। ভোট দেওয়ার পর তিনি বলেন, ‘আমরা কত আসন পাব তা বলতে পারব না। তবে জনতাই আমাদের মালিক। তারা যে রায় দেবে তাই মেনে নেব। তবে এটা জানি ভালোবাসার জয় হবে।’ তিনি এও বলেন, ‘এবার ভোটে চারটি মূল ইস্যু ছিল। প্রথমত- মানুষের চাকরি, কৃষকদের সমস্যা, নোটবন্দী ও জিএসটির সমস্যা এবং রাফায়েল কেনার দুর্নীতি।’ দেশজুড়ে ১০ কোটি ১৬ লাখ ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। ভাগ্য পরীক্ষা হলো ৯৭৯ জন প্রার্থীর। এ পর্বে হেভিওয়েট প্রার্থীদের মধ্যে যেমন একাধিক কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ছিলেন তেমনি ছিলেন কয়েকজন সাবেক মুখ্যমন্ত্রী, সাবেক কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ও বিভিন্ন জগতের সেলিব্রেটিরাও। এ পর্বে পশ্চিমবঙ্গে ৮টি লোকসভা কেন্দ্রে ভোট নেওয়া হয়। এগুলো হলো- তমলুক, কাঁথি, ঘাটাল, ঝাড়গ্রাম, মেদিনীপুর, পুরুলিয়া, বাঁকুড়া ও বিষ্ণুপুর আসন। আটটি কেন্দ্রে মোট ভোটারের সংখ্যা ১,৩৩,৬৯,৭৪৯ জন। মোট ৮৩ জন প্রার্থীর ভাগ্য নির্ধারণ হয়। ভোট সুষ্ঠু ও অবাধ করতে প্রতিটি ভোট কেন্দ্রেই কেন্দ্রীয় বাহিনীর পাশাপাশি রাজ্য পুলিশের সদস্যদেরও মোতায়েন করা হয়। কিন্তু তারপরও অশান্তি আটকানো গেল না। সকাল ৭টায় ভোট শুরুর পর থেকে ঘাটাল কেন্দ্রটি সংবাদের শিরোনামে চলে আসে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যনার্জির এক সময়ের বিশ্বস্ত আইপিস (পুলিশ) কর্মকর্তা ভারতী ঘোষকে ঘিরে বিক্ষোভে উত্তাল হয়ে ওঠে দোগাছিয়া এলাকায়। একসময় যে পুলিশ কর্মকর্তা এলাকায় রাজ করতেন এদিন তাকে ঘিরেই দফায় দফায় চলল বিক্ষোভ, ধস্তাধস্তি, ইটপাটকেল ছোড়াছুড়ি। এবার এই ভারতীকেই ঘাটাল কেন্দ্রে প্রার্থী করেছে বিজেপি। দোগাছিয়ার একটি বুথে ভারতী পৌঁছতেই তাকে ঘিরে বিক্ষোভ শুরু হয়। একসময় ইটবৃষ্টি শুরু হয়। সেই ইটের আঘাতে মাথা ফাটে ভারতী ঘোষের নিরাপত্তারক্ষীর। কাচ ভাঙে ভারতীর গাড়ির। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশকে লাঠিপেটা করতে হয়। এদিকে শনিবার রাতে রাজ্যটির ঝাড়গ্রাম জেলার গোপীবল্লভপুর এলাকায় রামিন সিং নামে এক বিজেপি কর্মীর লাশ উদ্ধারকে কেন্দ্র করে রীতিমতো চাঞ্চল্য ছড়ায়। এ ঘটনায় তৃণমূলের দিকে অভিযোগ উঠলে তারা তা অস্বীকার করেছে। ষষ্ঠ পর্বেই ঝাড়গ্রামে ভোট হচ্ছে। রবিবার সকালে কাঁথি লোকসভার অধীন মারধারা এলাকায় সুধাকর মাইতি নামে এক তৃণমূল কর্মীর লাশ উদ্ধার হয়। এ ছাড়াও পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার ভগবানপুরে দুই বিজেপি কর্মীর ওপর হামলার অভিযোগ উঠেছে তৃণমূলের বিরুদ্ধে। বাঁকুড়ার বাঁকাদহে বুথের লাইনে কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে গুলি চালানোর অভিযোগ। কলাবাগান প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বুথে ভোটের লাইনে দাঁড়ানো নিয়ে বচসার মধ্যে কেন্দ্রীয় বাহিনীকে গুলি চালাতে হয়।

৫৪৩ আসনবিশিষ্ট ভারতের লোকসভা নির্বাচনে ইতিমধ্যেই ৪৮৪ আসনে ভোটগ্রহণ শেষ। সাত পর্বের এ নির্বাচনে শেষ ধাপের নির্বাচন ১৯ মে। ওইদিন দেশটির আট রাজ্যের ৫৯ আসনে ভোট গ্রহণ হবে। গণনা ২৩ মে।

আমি মিথ্যা কথা বললে একশবার কান ধরে উঠবস করব- মমতা : আমাকে মিথ্যাবাদী প্রমাণ করতে পারলে একশবার কান ধরে উঠবস করব, আর মোদি যদি মিথ্যাবাদী প্রমাণিত হয় তবে তিনি একশবার কান ধরে উঠবস করবেন। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে সরাসরি চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। রবিবার রাজ্যটির দক্ষিণ চব্বিশপরগনা জেলার ক্যানিংয়ে এক নির্বাচনী জনসভা থেকে মোদিকে নিশানা করে মমতা বলেন, ‘… ওরা (বিজেপি) বলে মমতা ব্যানার্জি তো এ রাজ্যে দুর্গাপুজোও করতে দেয় না। আমি নাকি দুর্গাপুজো করতে দিই না। একটা মিথ্যাবাদী প্রধানমন্ত্রী! এত মিথ্যা কথা বলে। প্রমাণ করুক।’

Editor in Chief : Sayed Shakil
Office: Evan plaza, sador model thana road, cox’sbazar-4700. Email: dailycoxsbazar@gmail.com / phone: 01819099070
অনুমতি ছাড়া অথবা তথ্যসূত্র উল্লেখ না করে এই ওয়েব সাইট-এর কোন অংশ, লেখা বা ছবি নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনী