সংবাদ শিরোনাম

ইতিহাস গড়ে চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ

মোসাদ্দেক হোসেনের অনবদ্য ব্যাটিংয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে হারিয়ে প্রথম কোনো আন্তর্জাতিক ট্রফি জিতে ইতিহাস সৃষ্টি করেছে বাংলাদেশ।

এর আগে ছয়বার আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টের ফাইনালে খুব কাছে গিয়ে হারের মুখ দেখতে হয়েছে। সংশয় ছিল এবারও এমন কিছু ঘটবে কিনা। সংশয় আরও বাড়িয়ে দেয় ডার্কওয়ার্থ লুইস পদ্ধতিতে মাত্র ২৪ ওভারে ২১০ রানের টার্গেটে। কিন্তু না, এবার আর তীরে এসে তরী ডোবেনি। ট্রফি জয় করেই ইতিহাস সৃষ্টি করেছেন টাইগাররা। মোসাদ্দেক হোসেনের ক্ষুরধার ব্যাটেই ইতিহাসে নাম লেখায় বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। 

এর আগে মালাহাইড ক্রিকেট গ্রাউন্ডে নির্ধারিত সময় পৌনে চারটায় খেলা শুরু হয়। কিন্তু ২০ ওভার ১ বল না যেতেই আঘাত হানে বৃষ্টি। অনেক্ষণ বন্ধ থাকার পর রাত সাড়ে দশটায় খেলা শুরু হয়। খেলা দাঁড়ায় ২৪ ওভারে। বৃষ্টিতে খেলা থামার আগে উইন্ডিজরা কোনো উইকেট না হারিয়েই তুলে ফেলে ১৩১ রান। শেষ পর্যন্ত ২৪ ওভারে ১৫২ রান করে ক্যারিবীয়রা। তা ডিএলমেথডে দাঁড়ায় ২১০ রানে।

ক্যারিবীয়দের হয়ে সর্বোচ্চ ৭৪ রান করেন শাই হোপ। আরেক ওপেনার আম্ব্রিসের ব্যাট থেকে আসে ৬৯ রান। টাইগারদের হয়ে একমাত্র মেহেদী মিরাজ নেন এক উইকেট।

মাথায় ২১০ রানের বিশাল টার্গেট নিয়ে খেলতে নেমে সৌম্য সরকারের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে উড়ন্ত সূচনা করে টাইগাররা। মাত্র ২৭ বলে হাফসেঞ্চুরি করেন এই ওপেনার। শেষ পর্যন্ত ৪১ বলে ৬৬ রান করেন। তামিম-সাব্বির-মিথুন দ্রুত ফিরে গেলেও মুশফিক মাত্র ২২ বলে ৩৬ রানের ঝোড়ো ইনিংস খেলেন।

মোসাদ্দেক-মাহমুদুল্লাহ অসম্ভবকে সম্ভব করে সাত বল হাতে রেখে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়েন। মোসাদ্দেক মাত্র ২০ বলে হাফসেঞ্চুরি করেন। যা বাংলাদেশের ইতিহাসে দ্রুততম। মাহমুদ উল্লাহ অপরাজিত ছিলেন ২১ রানে।

Editor in Chief : Sayed Shakil
Office: Evan plaza, sador model thana road, cox’sbazar-4700. Email: dailycoxsbazar@gmail.com / phone: 01819099070
অনুমতি ছাড়া অথবা তথ্যসূত্র উল্লেখ না করে এই ওয়েব সাইট-এর কোন অংশ, লেখা বা ছবি নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনী