সংবাদ শিরোনাম

গৌরীপুরে আট ঘাতকের বাড়ি পোড়াল জনতা

পূর্বশত্রুতার জেরে স্থানীয় মাদক কারবারি নূরু মিয়া ও তার সহযোগীদের হাতে খুন হয়েছেন নুরুজ্জামান জনি নামে সাবেক এক ছাত্রলীগ নেতা। গত শুক্রবার রাত ৮টার দিকে গৌরীপুর উপজেলার মাওহা ইউনিয়নের নহাটা বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

এর প্রতিবাদে স্থানীয় জনতা রাত ১০টার দিকে হত্যাকা-ে জড়িত আটজনের বাড়িঘর আগুনে পুড়িয়ে দেয়। জনি মাওহার কুমড়ী গ্রামের মৃত সিদ্দিকুর রহমান মাস্টারের একমাত্র ছেলে। প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, নহাটা গ্রামের মৃত আজিম উদ্দিনের ছেলে মাদককারবারি নূরু মিয়ার সঙ্গে পূর্ব শত্রুতার জেরে প্রায় এক বছর ধরে জনির বিরোধ চলছিল।

এ নিয়ে একে অপরের বিরুদ্ধে গৌরীপুর থানায় পাল্টাপাল্টি মামলাও রয়েছে। শুক্রবার ইফতারের পর নহাটা বাজারে রুকন মিয়ার চায়ের দোকানে বসা ছিলেন জনি। এ সময় নূরু মিয়ার নেতৃত্বে অন্তত ২০ জন সশস্ত্র লোক জনিকে ডেকে নিয়ে সুজন মাহমুদের কম্পিউটারের দোকানের সামনে অতর্কিতে কোপাতে থাকে। তারা জনির বুকে ছুরিকাঘাত ও মুখে ক্ষুর দিয়ে আঘাত করে।

প্রাণ বাঁচাতে জনি দৌড়ে স্থানীয় খোকন মিয়ার পুকুর পাড়ে ওঠেন। সেখানে তিনি অজ্ঞান হয়ে পড়েন। ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এ দিকে জনির মৃত্যুর খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে রাত ১০টার দিকে শত শত জনতা নূরু মিয়া, কাঞ্চন মিয়া, জিলু মিয়া, শিরু মিয়া, মোজাম্মেল, শামছু, হেলিম ও আব্দুল খালেকের বাড়িঘর আগুন দেয়।

নিহতের মা ঝরনা খাতুন ও স্বজনরা জানান, জনি মাওহা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সহসম্পাদক ছিলেন। তিনি ময়মনসিংহ আনন্দ মোহন কলেজ থেকে হিসাববিজ্ঞানে অনার্স ও মাস্টার্স পাস করেন। নিহত হওয়ার আগ পর্যন্ত তিনি ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মী হিসেবে গৌরীপুর থানায় কর্মরত ছিলেন। এর পাশাপাশি তিনি একটি প্রাইভেট কোম্পানিতে চাকরি করতেন।

তারা আরও জানান, ঘটনার দিন বিকালে স্থানীয় বৈখেরহাটি বাজারে নূরু মিয়ার সঙ্গে জনির বাগবিত-া হয়। এর পর ইফতার শেষে বাড়ি থেকে কৌশলে মোবাইলে নহাটা বাজারে ডেকে নিয়ে তাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করে নূরু মিয়া গংরা। গৌরীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, হত্যাকা-ে জড়িতদের আটক করতে পুলিশ অভিযান শুরু করেছে।

Editor in Chief : Sayed Shakil
Office: Evan plaza, sador model thana road, cox’sbazar-4700. Email: dailycoxsbazar@gmail.com / phone: 01819099070
অনুমতি ছাড়া অথবা তথ্যসূত্র উল্লেখ না করে এই ওয়েব সাইট-এর কোন অংশ, লেখা বা ছবি নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনী