সংবাদ শিরোনাম

পরিস্থিতি সহজ ছিল না: মোসাদ্দেক

কঠিন পরিস্থিতিতে ইতিবাচক ক্রিকেট খেলেই সফলতা পেয়েছেন মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত। হয়েছেন আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টে বাংলাদেশের প্রথম শিরোপা জয়ের নায়ক। তবে তা মোটেও সহজ ছিল না। ম্যাচ শেষে নিজেই স্বীকার করেছেন তিনি।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে জয়ের জন্য তখন দরকার ছিল ৫০ বলে ৬৭ রান। হাতে ছিল মাত্র ৫ উইকেট। সেই পরিস্থিতিতে ক্রিজে নামেন মোসাদ্দেক। শুরুতে কিছুটা অস্বস্তি বোধ করেন তিনি। তবে সময় গড়ানোর সঙ্গে খোলস ছেড়ে বেরিয়ে আসেন। পরে দলকে ম্যাচ জিতিয়ে বিজয়ীর বেশে মাঠ ছাড়েন।

দীর্ঘদিন জাতীয় দলের বাইরে ছিলেন মোসাদ্দেক। সবশেষ খেলেন এশিয়া কাপে। পরে দল থেকে ছিটকে পড়েন তিনি। ঘরোয়া ক্রিকেটে পারফর্ম করে ফের জায়গা করে নেন স্কোয়াডে। একে ফাইনাল, এর ওপর আবার নিজেকে প্রমাণ করা। সবকিছু মিলিয়ে চাপটা বেশিই ছিল তার ওপর।

তবে সব চাপ সামলে ২৪ বলে ৫২ রানের দুর্দান্ত টর্নেডো ইনিংস খেলে দেশকে এনে দিয়েছেন প্রথম টুর্নামেন্ট শিরোপা। কোটি ক্রিকেটপ্রেমীকে ভাসিয়েছেন আনন্দের জোয়ারে। নিজের সামর্থ্যের প্রমাণও দেয়া হয়ে গেছে।

মোসাদ্দেক বলেন, যখন ব্যাটিংয়ে যাই, তখন একটা বিষয়ই কাজ করছিল-আমি ইতিবাচক ক্রিকেট খেলব। তখন পরিস্থিতি খুব একটা সহজ ছিল না। চেষ্টা করছিলাম, যেমন বল হবে, সেই অনুযায়ী খেলব। আমি শুধু এটাই করেছি।

বিশ্বকাপের আগে এমন একটি অসাধারণ ইনিংস স্বভাবতই মোসাদ্দেকের আত্মবিশ্বাসের পালে হাওয়া দিচ্ছে। ইংল্যান্ডে আসন্ন বিশ্বমঞ্চে এ ধরনের ইনিংস খেলে দলে অবদান রাখতে চান তিনি।

ডানহাতি বিধ্বংসী ব্যাটসম্যান বলেন, বিশ্বকাপে উইকেট আরো ভালো হবে। লোয়ার মিডলঅর্ডারে নেমে যদি এ ধরনের ইনিংস খেলতে পারি, তা হলে তা দলের জন্য দারুণ হবে। যদি সুযোগ পাই, নিজের খেলাটা খেলার চেষ্টা করব। চেষ্টা করব তেমন ইনিংস খেলার, যেটা দলের কাজে দেবে।

Editor in Chief : Sayed Shakil
Office: Evan plaza, sador model thana road, cox’sbazar-4700. Email: dailycoxsbazar@gmail.com / phone: 01819099070
অনুমতি ছাড়া অথবা তথ্যসূত্র উল্লেখ না করে এই ওয়েব সাইট-এর কোন অংশ, লেখা বা ছবি নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনী