সংবাদ শিরোনাম

সোনাদিয়ায় বিনিয়োগে আগ্রহী পর্যটন ব্যবসায়ীরা

sonadia-map-dcসোনাদিয়া দ্বীপকে পর্যটকদের জন্য আকর্ষনীয় করতে তুলতে বেসরকারী বিনিয়োগকারীরা এগিয়ে আসলেও নানা প্রতিবন্ধকতার কারণে মূখ থুবড়ে পড়ছে গৃহীত পরিকল্পনা। কয়েকটি প্রতিষ্ঠান বিনিয়োগে আগ্রহী হলেও এখনো অনুমতি না মেলায় হতাশ হয়ে পড়েছেন।
প্রাকৃতিক সোন্দর্য্য,জীব-বৈচিত্র সমৃদ্ধ অনন্য সুন্দর ও পর্যটন সম্ভাবনায় এ দ্বীপে যথেষ্ট সম্ভাবনা থাকার সত্ত্বেও সরকারী বা বেসরকারী ভাবে যথাযথ উদ্যোগ ও পরিকল্পনার না থাকায় কোন পরিবর্তন হয়নি। বিভিন্ন সভা ও সেমিনারে পর্যটন শিল্প বিকাশে সোনাদিয়া নিয়ে আলোচনা হলেও তা আলোচনাতেই সীমাবদ্ধ থেকে যাচ্ছে।
কক্সবাজার পর্যটন শিল্পে অন্যতম বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠান মারমেড ইকো রিসোর্টের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আশরাফুজ্জামান সোহাগ জানান, অনুমতি পেলেও সোনাদিয়ায় একটি ইকো রিসোর্ট করার পরিকল্পনা আছে। এতে সরকারের সংশ্লিষ্ট বিভাগকে এগিয়ে আসতে হবে। যদি প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হয় সবাই নিরুৎসাহিত হবে। সম্প্রতি আমাদের প্রতিষ্টানের পক্ষ থেকে পর্যটকদের সোনাদিয়া নিয়ে যাওয়া হয় প্রতিনিয়ত। পর্যটকরা সোনাদিয়া দেখতে প্রচন্ড আগ্রহী। কিন্তু প্রতিবন্ধকতা ও পরিবেশ না থাকায় আমরা বাধাগ্রস্ত হচ্ছি। অনুমতি চেয়ে একটি আবেদন করলেও তা কার্যকর হয়নি।
কুতুবজুম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন খোকন জানান, বেসরকারী বিনিয়োগকারীদের উদ্ভুদ্ধ করলে সোনাদিয়া দেশের অন্যতম পর্যটন কেন্দ্রে পরিণত হবে। ইতোমধ্যে দুইটি জেটি অস্থায়ীভাবে স্থাপন করা হয়েছে। পর্যটকদের সোনাদিয়ার নামার মত ব্যবস্থা না থাকলে যারা আসে তারা নামতে না পেরে ফিরে যেতে বাধ্য হয়। তিনি আরো জানান, সোনাদিয়া একটি নিরাপদ দ্বীপ। পর্যটকরা স্বচ্ছন্দে ঘুরতে পারবে। এ বিষয়ে আশেক উল্লাহ রফিক এমপি পর্যটন মন্ত্রণালয়কে অবহিত করেছেন।
৪’হাজার ৯’শত ২৮ হেক্টর জায়গার উপর অবস্থিত সোনাদিয়া দ্বীপ পূর্ব পশ্চিম লম্বা-লম্বী বঙ্গোপসাগরের উত্তাল তরঙ্গ মালার সাথে অবস্থানরত এক অপার সম্ভাবনাময়ী স¤পদে ভরপুর চরাঞ্চল। মহেশখালীর দক্ষিণে অবস্থিত এই সোনাদিয়া দ্বীপের আয়তন ৭ বর্গকিলোমিটার। এই দ্বীপে মোট জমির পরিমান ২’হাজার ৯’শত ৬৫.৩৫ একর। চারপাশে খাল থাকায় সোনাদিয়া দ্বীপ মহেশখালী মূল দ্বীপ থেকে বিচ্ছিন্ন। প্রায় ১৪ কিলোমিটার দীর্ঘ প্রশস্ত সৈকত রয়েছে এই দ্বীপে।
মহেশখালী-কুতুবদিয়ার সংসদ সদস্য আশেক উল্লাহ রফিক জানান, পর্যটন শিল্পের অপার সম্ভবনাময় এলাকা মহেশখালীর সোনাদিয়া। বিষয়টি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় অবহিত আছেন। পর্যটন শিল্প বিকাশে সোনাদিয়ার গুরুত্ব অনেক। তাই সোনাদিয়া পর্যটন উপযোগী করে তুলতে বেসরকারী বিনিয়োগকারীদের এগিয়ে আসতে হবে। এ জন্য সকল প্রতিবদ্ধকতা দুর করে এগিয়ে যেতে হবে। বিষয়টি উর্ধ্বতন কর্তপক্ষকে পুনরায় অবহিত করা হবে।

মন্তব্য করুন

(বিঃ দ্রঃ আপনার ইমেইল গোপন রাখা হবে) Required fields are marked *

*

Editor- Sayed Mohammad SHAKIL.
Office: Evan plaza, sador model thana road, cox’sbazar-4700. Email: dailycoxsbazar@gmail.com / phone: 01819099070
অনুমতি ছাড়া অথবা তথ্যসূত্র উল্লেখ না করে এই ওয়েব সাইট-এর কোন অংশ, লেখা বা ছবি নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনী