সংবাদ শিরোনাম

পেকুয়ার উজানটিয়ায় ৩ প্রকল্পে কাজ না করেই টিআরের ৯ টন চাল লোপাট!

durniti-dc-logo-rrপেকুয়া উপজেলার উজানটিয়া ইউনিয়নে ৩ প্রকল্পে কাজ না করেই টিআরের ৯ টন চাল লুটপাঠ হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ নিয়ে এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। জানা গেছে, ২০১৫-১৬ অর্থ বৎসরে পেকুয়া উপজেলা পরিষদের সাধারন টিআর থেকে উজানটিয়া ইউনিয়নের ৩টি প্রকল্পে ৯ টন চাল বরাদ্দ দেওয়া হয়। প্রকল্পগুলো হচ্ছে, ৭ নং ওয়ার্ড়ের পূর্ব উজানটিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন শহীদ মিনার সংস্কারের ২ টন, ৬ নং ওয়ার্ড়ের খাতুনে জান্নাত মহিলা মাদ্রাসা সংষ্কারে ১ টন ও ৭ নং ওয়ার্ড়ে উজানটিয়া ইউনিয়ন পরিষদের মাঠ ভরাট ও সোলার প্যানেলযুক্ত ল্যাম্পপোষ্ট মধ্যম উজানটিয়া ফোরকানের দোকানের সামনে ত্রি মোহনায় সোলার প্যানেলযুক্ত ল্যাম্পপোষ্ট স্থাপনের জন্য ৬ টন চাল বরাদ্দ দেওয়া হয়। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, এ তিন প্রকল্পের প্রকল্প কমিটির লোকজনের কাছ থেকে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান বরাদ্দের ডিও হাতিয়ে নিয়ে চকরিয়া খাদ্য গুদাম থেকে বরাদ্দও উত্তোলন করে নিয়েছেন গত তিন মাস পূর্বে। প্রকল্প মেয়াদ শেষ হলেও গতকাল ৯ মে পর্যন্ত ওই ইউনিয়নের ৩ প্রকল্পে কোন ধরনের কাজ হয়নি।

গতকাল ৯ মে সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, পূর্ব উজানটিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন শহীদ মিনারে সামাম্য চুন কাম লাগিয়ে ২ টন চাল লোপট করা হয়েছে। অপরদিকে উজানটিয়া ইউনিয়ন পরিষদের মাঠ ভরাটসহ সোলার স্থাপনের জন্য ৬ টন চাল বরাদ্দ দেওয়া হলেও গতকাল ৯ মে পর্যন্ত এ প্রকল্পে একটাকার কাজও করা হয়নি।নাম প্রকাশ না করার শর্তে স্থানীয়রা অভিযোগ করেছেন, উজানটিয়া ইউপি চেয়ারম্যান ওই প্রকল্পের সমুদয় টাকা লুটপাট করেছেন। উজানটিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি তোফাজ্জল করিম অভিযোগ করেছেন, টিআর বরাদ্দের কথা শুণেছি অনেক আগে থেকে। কিন্তু এখনো পর্যন্ত প্রকল্পের কাজ বাস্তবায়ন হয়নি। তিনি সরকারী বরাদ্দ আত্মসাতের সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে জোরালো দাবী জানিয়েছেন।

জানা গেছে, প্রতিটন চালের সরকারী বাজার মূল্য ৩৩ হাজার ৫’শ টাকা। সে হিসেবে উজানটিয়া ইউনিনের ওই ৩ প্রকল্পের ৯ টন চালের সরকারী বাজার মূল্যে হচ্ছে ৩লাখ ১৫হাজার টাকা। পেকুয়া উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকতার কার্যালয়ের কর্মকর্তাদের যোগসাজশে সরকারী বিপুল এ খাদ্য শষ্য প্রকল্প বাস্তবায়ন না করেই লুটপাট করা হয়েছে। উজনটিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের

ওই তিন প্রকল্পে লুটপাঠের ব্যাপারে জানতে উজানটিয়া ইউপি চেয়ারম্যানের সাথে ফোনে যোগাযোগ করা হলে তাকে পাওয়া যায়নি।

এ ব্যাপারে পেকুয়ার পিআইও সৌভ্রাত দাশের সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, সরেজমিনে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। প্রকল্প বাস্তবায়ন না করলে সংশ্লিষ্ট প্রকল্প কমিটির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এ ক্ষেত্রে ছাড় দেওয়া হবেনা।

মন্তব্য করুন

(বিঃ দ্রঃ আপনার ইমেইল গোপন রাখা হবে) Required fields are marked *

*

Editor- Sayed Mohammad SHAKIL.
Office: Evan plaza, sador model thana road, cox’sbazar-4700. Email: dailycoxsbazar@gmail.com / phone: 01819099070
অনুমতি ছাড়া অথবা তথ্যসূত্র উল্লেখ না করে এই ওয়েব সাইট-এর কোন অংশ, লেখা বা ছবি নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনী