সংবাদ শিরোনাম

৫০ শতাংশ নারী অনাকাঙ্খিত স্পর্শের শিকার

বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা অ্যাকশনএইড’র এক জরিপে বলা হয়েছে, ৫০ শতাংশ নারী বাজারে গিয়ে অনাকাঙ্খিত স্পর্শ বা এ ধরনের ঘটনার শিকার হন। আর হাসপাতালে সেবা নিতে যাওয়া ৪২ দশমিক ৫ শতাংশ নারী হয়রানি বা বাজে ব্যবহারের শিকার হন বলে গবেষণা প্রতিবেদনটিতে বলা হয়েছে। রোববার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে (ডিআরইউ) ‘মানসম্মত গণসেবা’ বিষয়ক আলোচনা সভায় এসব তথ্য তুলে ধরে অ্যাকশনএইড।

নারীর প্রতি সহিংসতা নিরসনে গৃহীত উদ্যোগের পরিস্থিতি যাচাই করতে খুলনা, রাজশাহী, চট্টগ্রাম ও নারায়ণগঞ্জ এ চারটি সিটি করপোরেশনে জরিপ চালানো হয়। জরিপকৃত প্রতিষ্ঠানগুলো হলো স্থানীয় পুলিশ প্রশাসন, সিটি করপোরেশন, পরিবহন, বাজার ব্যবস্থাপনা এবং হাসপাতাল। অ্যাকশনএইডের ম্যানেজার নুজহাত জাবিন বলেন, জরিপকৃত এলাকার ৩০ শতাংশ নারী জানিয়েছেন থানায় গিয়ে তারা টিজিংয়ের শিকার হন এবং ৩৫ শতাংশ মনে করেন তারা শারীরিক নির্যাতনের শিকার হন। গবেষণায় দেখা গেছে নারীর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধে তেমন কোনো ব্যবস্থা নেই। অন্যদিকে ১৫ শতাংশ নারী মনে করেন তারা হাসপাতালে কোনো না কোনোভাবে শারীরিক বা মানসিক নির্যাতনের শিকার হচ্ছেন। তিনি বলেন, এখন পর্যন্ত সিটি করপোরেশনের নীতিমালার মাধ্যমে নারী কাউন্সিলরদের বিশেষ কোনো দিকনির্দেশনা নেই। এছাড়া নারীদের আলাদা বসার জায়গা, আলাদা টয়লেট সুবিধা এমনকি মাতৃদুগ্ধপানের আলাদা কোনো স্থান নেই। ফলে এক বছরের নিচে শিশুদের টিকাদানের সময় সমস্যায় পড়তে হয়। সভায় বাংলাদেশ উন্নয়ন গবেষণা প্রতিষ্ঠানের সাবেক জ্যেষ্ঠ গবেষক প্রতিমা পাল মজুমদার বলেন, গণসেবা নিশ্চিত করতে রাজস্ব আয় বাড়ানোর নতুন উদ্ভাবনী কৌশলের পাশাপাশি সরকারি ও বেসরকারি অংশীদারত্বের বিষয়টিতে গুরুত্ব দিতে হবে। সভায় অ্যাকশনএইড বাংলাদেশের পরিচালক আজগর আলী সাবরি রাষ্ট্রীয় পর্যায়ে গণসেবা নিশ্চিত করতে অর্থায়ন ও বিনিয়োগ বাড়ানোর সুপারিশ করেন।

Editor- Sayed Mohammad SHAKIL.
Office: Evan plaza, sador model thana road, cox’sbazar-4700. Email: dailycoxsbazar@gmail.com / phone: 01819099070
অনুমতি ছাড়া অথবা তথ্যসূত্র উল্লেখ না করে এই ওয়েব সাইট-এর কোন অংশ, লেখা বা ছবি নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনী
error: Content is protected !!