সংবাদ শিরোনাম

রোহিঙ্গা স্রোতে আসছে ইয়াবা : চলছে অবৈধ পশুর করবার

মিয়ানমারের চলমান সহিংসতার পর থেকে সীমান্তের তিনটি পয়েন্টে অবৈধভাবে গরুর বাজার বসানোর কারণে মিয়ানমারে সেনা বাহিনীর গুলিতে হতাহত হচ্ছেন বাংলাদেশী যুবকরা। চুরি করে গরু আনতে গিয়ে স্থল মাইনে আহত হয়েছেন তুমব্রু এলাকার দুই ব্যক্তি। অবৈধ গরু বাজারে অল্প টাকায় অতি মুনাফার লোভে পড়ে হতাহত হচ্ছে স্থানীয়রা। টেকনাফের হোয়াইকং, মিনাবাজার ও নাইক্ষ্যংছড়ির তুমব্রুতে স্বল্প পুঁজির রমরমা গরু ব্যবসার আড়ালে ইয়াবার চালানও আসছে বলে জানা গেছে। সীমান্তরক্ষী দল বিজিবি ও প্রশাসনের লোকজন অনুপ্রবেশকারী রোহিঙ্গার স্রোত সামাল দিতে হিমশিম খাচ্ছে। এ সুযোগে কতিপয় চোরাচালানি সীমান্ত পয়েন্টে গরু বাজার বসিয়ে অবৈধ কারবার চালিয়ে যাচ্ছে। প্রতিদিন চোরাই পথে শত শত গরু মহিষ ও ছাগল আসছে ওসব হাটে। রোহিঙ্গাদের রেখে আসা গরু মহিষ ও ছাগলের বৈধতা দিয়ে যাচ্ছে তুমব্রু বাজার, হোয়াইক্যং বাজার ও মিনাবাজারের কতিপয় ইজারাদার। এমনও অভিযোগ রয়েছে, ওসব গরু বাজারে বিঘœ সৃষ্টি না হওয়ার জন্য চিহ্নিত দালাল চক্র বিজিবি ও পুলিশের নামে প্রত্যেহ মোটা অঙ্কের টাকা আদায় করছে। তবে বিজিবি এ অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

জানা গেছে স্থানীয় কিছু ব্যক্তি মুনাফা লাভের আসায় মিয়ানমারে গিয়ে গরু মহিষ চুরি করে নিয়ে আনতে উৎসাহিত করে চলছে বেকার যুবকদের। মুনাফা লোভি ব্যক্তিরা ইজারাদার হতে মোটা অঙ্কের টাকার বিনিময়ে রশিদ সংগ্রহ করে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে চোরাই গরু মহিষ সরবরাহ করে যাচ্ছে। সীমান্তে অবৈধ গরু বাজার নানাবিধ বিপদ ডেকে আনছে দাবী করে স্থানীয়রা এ বিষয়ে প্রশাসনের হস্তেক্ষেপ কামনা করেছেন।

Editor- Sayed Mohammad SHAKIL.
Office: Evan plaza, sador model thana road, cox’sbazar-4700. Email: dailycoxsbazar@gmail.com / phone: 01819099070
অনুমতি ছাড়া অথবা তথ্যসূত্র উল্লেখ না করে এই ওয়েব সাইট-এর কোন অংশ, লেখা বা ছবি নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনী